চারটি জাপানিজ কোম্পানি মিলে তৈরি করবে হাইড্রোজেন ইঞ্জিন!

Published On 27-Nov-2021 07:33pm , By Raihan Opu Bangla

জাপানের চারটি বড় বড় মোটরসাইকেল কোম্পানি - ইয়ামাহা, হোন্ডা, সুজুকি এবং কাওয়াসাকি, তারা সবাই একত্রিত হয়ে তৈরি করতে যাচ্ছে একটি ফর্মুলা হাইড্রোজেন ইঞ্জিন। এই ইঞ্জিন কার্বন নিঃসরণ অনেক কমিয়ে নিয়ে আসবে।

চারটি জাপানিজ কোম্পানি মিলে তৈরি করবে হাইড্রোজেন ইঞ্জিন!

iwanbanaran.com এ থেকে জানা যায় যে, ইতি মধ্যে কাওয়াসাকি এবং ইয়ামাহা দুটি কোম্পানি মোটরসাইকেলে হাইড্রোজেন ইঞ্জিন ব্যবহারের ব্যাপারে গবেষণা করতে সম্মত হয়েছে। রিপোর্টে আরও বলা হয়েছে সুজুকি ও হোন্ডা তারাও এই বিষয়ে নিজেদের সম্মতি জানিয়েছে।

honda-250 হাইড্রোজেন ইঞ্জিন

তাই ছোট করে বলা যায় মোটরসাইকেলের জন্য হাইড্রোজেন তৈরি করতে চারটি জাপানিজ কোম্পানি সম্মত হয়েছে। যাতে করে এই ইঞ্জিন থেকে একদম কম বা জিরো কার্বন নিঃসরন হয়।

আরো পড়ুনঃ ইঞ্জিন ফ্ল্যাশ কি কি ক্ষতি করে? ইঞ্জিন ফ্ল্যাশ করলে লাভ কি ?

তবে এটা খুবই আশ্চর্যের বিষয় যে এখন যখন সবাই ইলেক্ট্রিক মেশিনের দিকে ঝুকে যাচ্ছে, সেখানে এই ইঞ্জিন তৈরি করা বেশ অবাক কর একটি বিষয়।

গত ১৩ নভেম্বর সুপার টাইকিউ - ফোর হুইলার রেসিং কনফারেন্স এ এই ঘোষণাটি দেয়া হয়। এটা স্বাভাবিক যে আমরা আগামী ২০৫০ সাল নাগাদ কার্বন নিউট্রাল ইঞ্জিন নিয়ে কাজ করতে যাচ্ছি।

yamaha-r25-250 হাইড্রোজেন ইঞ্জিন

হাইড্রোজেন ইঞ্জিন কে এমন ভাবে ডেভলপ করা হবে যেন ইঞ্জিনের সঠিক ভাবে রান করতে পারে। এর জন্য আমরা অন্যান্য ম্যানুফ্যাকচারারদের সাথে কাজ করছি। বলছিলেন ইয়ামাহা এর প্রেসিডেন্ট ইউসিকো হাসিমোটো।

অপর দিকে কাওয়াসাকি হেভি ইন্ডাস্ট্রিজ এর প্রেসিডেন্ট বলেন, ইঞ্জিনের কর্মক্ষমতা ও তার ভেতরে যেসব প্রযুক্তি দেয়া হবে সেগুলো জাপানিজ প্রযুক্তির আদলে তৈরি করা হবে।

আরো পড়ুনঃ Quick-Shifter কি ? কিভাবে কাজ করে ? ইঞ্জিনের জন্য ক্ষতিকর ?

আমরা চেষ্টা করব ইঞ্জিনকে হাইড্রোজেন এর মাধ্যমে পরিচালিত কিভাবে করা যায় সেটা দেখা। তাই কাওয়াসাকিও সবার সাথে এই ইঞ্জিন তৈরিতে যোগদান করবে।

এই অনুষ্ঠানে হিদিকো প্রেসিডেন্ট অফ ইয়ামাহা, হিসোরি ইতো প্রেসিডেন্ট অফ কাওয়াসাকি মোটরস এবং সুজুকির মাইসিওসি ইতো একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেন, যা জাপানিজ অটোমোবাইল তৈরিকারকের অনেক গুরুত্বপূর্ন একটি চুক্তি হিসেবে বিবেচিত হয়েছে। যদিও হোন্ডা এখানে অফিশিয়ালি উপস্থিত ছিল না, তবে ঘোষণা এসেছে যে চারটি জাপানিজ কোম্পানি এক সাথে এই ইঞ্জিন তৈরি করবে।

Suzuki-GSX-250R

যদিও এখনও বিস্তারিত আসেনি যে এই চুক্তির মধ্যে আরও কি কি যুক্ত হতে পারে, এখনও কিছু শিডিউল করা বাকি রয়েছে। এদের ইঞ্জিনে ফুয়েল ট্যাঙ্ক, হাইড্রোজেন পাইপ এবং ইনটেঁক ডিভাইস সহ অনেক কিছুই ডেভলপ করতে হবে এবং এগুলো চারটি জাপানিজ কোম্পানি মিলে তৈরি করবে বলে জানা গিয়েছে। সবার ই লক্ষ্য হচ্ছে খুব ভাল মানের এবং পরিকল্পনা অনুযায়ী ইঞ্জিন তৈরি করা।

কোন সন্দেহ নেই যে এটি একটি ভাল সংবাদ, যারা ইন্টারনাল ইঞ্জিন তৈরি করে থাকে এবং তারা সবাই ঝুকে পরেছে ইলেক্ট্রিক্যাল এর দিকে, তাই এটি তাদের জন্য একটি সুখবর যে হাইড্রোজেন ইঞ্জিন তৈরি করা হচ্ছে।

kawasaki-ninja-250

তাই এটা বলা যায় যে ভবিষ্যতের ইঞ্জিন ব্যাটারি এর মত এই ইঞ্জিন হবে না। কিন্তু এই ইঞ্জিন তৈরি বা ডেভলপ করতে অনেক বেশি গবেষণা করতে হবে, যাতে করে ফুয়েল ইঞ্জিন এর পরিবর্তে এটা ব্যবহার করা যাবে এবং এটি পরিবেশ বান্ধব হবে।