TVS Metro Plus 110 ৪০০০ কিলোমিটার মালিকানা রিভিউ - রায়হান

Published On 13-Feb-2022 04:43pm , By Shuvo Bangla

আসসালামু আলাইকুম। আমি রায়হান সোবহান। আমি কুষ্টিয়ার টালিপাড়ায় বসবাস করি। বর্তমানে আমি TVS Metro Plus 110 বাইকটি ব্যবহার করছি।


tvs metro plus 110 bike


আজ আমি আপনাদের সাথে আমার TVS Metro Plus 110 বাইকটি নিয়ে ৪০০০ কিলোমিটার রাইডের অভিজ্ঞতা এবং আমার টিভিএস মেট্রো প্লাস বাইকটি ব্যবহারের অভিজ্ঞতা শেয়ার করব।

TVS Metro Plus 110 ৪০০০ কিলোমিটার মালিকানা রিভিউ

আমি ছোটবেলা থেকেই বাইক খুব বেশি পছন্দ করি। আমি যখন দশম শ্রেণিতে পড়াশুনা করি তখন আমি বাইক চালানো শিখি। যদিও এখন আমি ১১০ সিসি একটি বাইক ব্যবহার করছি। তবে ভবিষ্যতে আমি একটি স্পোর্টস বাইক কিনবো ইনশাআল্লাহ ।


tvs metro plus 110 meter view


আমি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১ম বর্ষের ছাত্র থাকাকালীন এই টিভিএস মেট্রো প্লাস বাইকটি কিনেছি। এটি আমার স্বপ্নের বাইক নয়, তবে আমি এই বাইকটি চালিয়ে আনন্দিত। শোরুম থেকে বাইকটি কিনে যখন প্রথম রাইড করলাম তখন নিজের কাছে খুবই ভালো লাগছিল যা ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না।

আমি এই বাইকে টিভিএসের ইঞ্জিন অয়েল 10W30 ব্যবহার করছি। আমার বাইকটি আমি এখন পর্যন্ত ৪০০০ কিলোমিটার রাইড করে সর্বমোট ৬ বার সার্ভিসিং করিয়েছি।


TVS Radeon Review By Team BikeBD


বাইকটিতে এখন পর্যন্ত কোন পার্টস পরিবর্তন করার প্রয়োজন পড়েনি। শুধুমাত্র এর হেড লাইটের আলো পর্যাপ্ত না হওয়ার কারণে এর হেড লাইট বাল্বটি পরিবর্তন করেছি।

এই বাইক দিয়ে আমার তোলা টপ স্পিড হচ্ছে ৯০ কিমি/ঘন্টা। আমি যখন বাইকটি কিনেছিলাম তখন এর দাম ছিল ১ লাখ ৩ হাজার টাকা। বর্তমানে এর দাম ১ লাখ ৮ হাজার টাকা।

Click To See TVS Bike Price In Bangladesh

tvs metro plus 110 red black

এখন আমি আমার  TVS Metro Plus 110 বাইকটির কোন বিষয়গুলো ভাল লেগেছে আর কোনগুলো ভালো লাগেনি সেই মতামতটি শেয়ার করছি।

TVS Metro Plus 110 বাইকের কিছু খারাপ দিক -

  • এই বাইকের নেগেটিভ দিকের প্রথমটি হ'ল এসি সিস্টেমের হেডলাইট।  এই লাইটটি থ্রোটলের সাথে সম্পর্কিত।
  • হাই স্পিড ব্রেকিং রেসপন্স খুব একটা ভালনা।
  • আমি এই বাইকের ৫০-৬০ স্পিডে কিছুটা ভাইব্রেশন অনুভব করেছি।
  • পাওয়ার ডেলিভারী কম।
  • কোন গিয়ার ইন্ডিকেটর নেই।

TVS Metro Plus 110 বাইকের কিছু ভালো দিক -

  • এই বাইকের ইতিবাচক প্রথম দিকটি হ'ল এর বিল্ড কোয়ালিটি। এই বাইকের বিল্ড কোয়ালিটি দুর্দান্ত।
  • বাইকটির সিটিং পজিশন বেশ আরামদায়ক।
  • বাইকটির মাইলেজ যথেষ্ট ভাল।  সিটি রাইডে আমি ৪৮-৫০ কিলোমিটার/লিটার এবং হাইওয়েতে ৫২-৫৩ কিলোমিটার/লিটার মাইলেজ পেয়েছি।
  • বাইকের সাস্পেন্সন যথেষ্ট আরামদায়ক।
  • পিলিয়ন সিট বেশ আরামদায়ক।

tvs metro plus 110

Click To See All Bike Price In Bangladesh

TVS Metro Plus 110 বাইকটি সিটিতে চালানোর জন্য ভাল তবে হাইওয়ে রাইডে বাইকটি ব্যবহার করা বেশ বিপজ্জনক। সবাই দয়া করে সার্টিফাইড হেলমেট ব্যবহার করে বাইক রাইড করুন এবং লং রাইডের ক্ষেত্রে সেফটি গিয়ার ব্যবহার করুন। ধন্যবাদ।


লিখেছেনঃ রায়হান সোবহান

 

আপনিও আমাদেরকে আপনার বাইকের মালিকানা রিভিউ পাঠাতে পারেন। আমাদের ব্লগের মাধ্যেম আপনার বাইকের সাথে আপনার অভিজ্ঞতা সকলের সাথে শেয়ার করুন! আপনি বাংলা বা ইংরেজি, যেকোন ভাষাতেই আপনার বাইকের মালিকানা রিভিউ লিখতে পারবেন। মালিকানা রিভিউ কিভাবে লিখবেন তা জানার জন্য এখানে ক্লিক করুন এবং তারপরে আপনার বাইকের মালিকানা রিভিউ পাঠিয়ে দিন articles.bikebd@gmail.com – এই ইমেইল এড্রেসে।