Suzuki Hayate EP ৮০০০ কিলোমিটার রাইড রিভিউ - সামিউল

Published On 01-Feb-2022 11:46am , By Shuvo Bangla

আমি মোঃ সামিউল ইসলাম । আমার গ্রাম এর বাড়ি নওগাঁ, রাজশাহী। আমার আব্বুর চাকরি সূত্রে আমার পরিবার নিয়ে আমি সাতক্ষীরা জেলার তালা উপজেলাতে থাকি। বর্তমানে আমি Suzuki Hayate EP বাইকটি ব্যাবহার করি । আজ আমি আমার বাইকটি নিয়ে আপনাদের সাথে কিছু অভিজ্ঞতা শেয়ার করবো ।


suzuki hayate ep


আমার বাইকটি ৮০০০+ কিলোমিটার রাইড করেছি। ছোট বেলা থেকে আমার সাইকেল এবং মোটরসাইকেলের প্রতি খুব আগ্রহ ছিল । ছোট বেলায় যখন আমি আব্বুর সাথে কোথাও যেতাম আব্বু আমাকে বাইক এর ট্যাংকির উপর বসায় দিতো অনেক মজা পেতাম।

Click To See Suzuki Hayate EP Bike Price In Bangladesh

আব্বু মাঝে মাঝে আমকে বাইক এর হ্যান্ডেল ধরতে বলতো এভাবেই থ্রটল এর উপর হাত রেখে আস্থে আস্থে বাইক চালানো শুরু হয় । বাসায় এসে আম্মুকে বলতাম আম্মু আমি বাইক চালাইছি আমার আম্মু আব্বুর উপর অনেক রাগ করতো আব্বু কে বলতো অত টুকু ছেলে যদি কোনো দুর্ঘটনা হয়ে যায় । আম্মুর ভয়ে আব্বু আমাকে আর বাইক দিতো না ।
 
suzuki hayate ep bike
 
তারপর আমি যখন ক্লাস ৫ এ পড়ি তখন একদিন আমার একটা বড় ভাইয়া আমাকে বললো তুমি বাইক চালাতে পার? আমি বললাম না ভাইয়া পারি না তো ভাইয়া বলল আব্বুর কাস থেকে গাড়ির চাবি নিয়ে আসো। আমি এক দৌড়ে যেয়ে আব্বুর কাস থেকে চাবি নিয়ে আসলাম।
 
তারপর গেলাম বাইক এর পিছনে বসে আসলাম বাইক চালাতে চালাতে। আমার তখন বিশ্বাস হচ্ছিল না যে আমি এত তারা তারি বাইক চালানো শিখে গেছি। ওই দিন অনেক খুশি ছিলাম। আমার আব্বুর ফার্স্ট বাইক ছিলো Hero Honda Splendor
 
আব্বু 2016 তে Hero Honda Passion Pro কিনলো এই Passion Pro বাইকটি দিয়ে আমার বাইক চালানো শেখা। আমার অনেক সৃতি রয়েছে এই বাইকে।
 
suzuki hayate ep bike meter


 
এর পরে আব্বু Suzuki Hayate EP বাইকটা কিনলো। আর এখন বাইকটি আমার হয়ে গেছে সব সময় আমার কাছেই থাকে । বাইকটিতে তেমন কোনো মডিফিকেশন এর প্রয়োজন হয়নি । আমার বাইকের টপ স্পীড পেয়েছি 91 km/h সাতক্ষীরা বাইপাস রোডে।
 
এর বেশি চেষ্টা করিনি। আমার লং রাইড ছিল সাতক্ষীরা থেকে বাগেরহাট । হাইওয়ে রাইডে আমার কোনো সমস্যা হয়নি। কিন্তু আমার মনে হয় রাতে এই বাইকে নিয়ে হাইওয়ে রাইড করলে অনেক সাবধানে রাইড করতে হবে কারণ বাইকের হেডলাইটের আলো একটু কম।
 
 
আমার বাইকে যেমন ভালো দিক রয়েছে তেমন খারাপ দিক ও রয়েছে । সেগুলো এখন আপনাদের কাছে তুলে ধরার চেষ্টা করবো।


suzuki hayate ep 110


Suzuki Hayate EP বাইকের কিছু ভালো দিক - 

  • লুকিং
  • সুইচ কোয়ালিটি
  • বাইক এর সাউন্ড অনেক সুন্দর
  • লং রাইডে কোনো সমস্যা হয় না
  • স্পীড এবং ইঞ্জিন পাওয়ার ভালো

Suzuki Hayate EP বাইকের কিছু খারাপ দিক -

  • সাইলেন্সর এর উপরে প্লাস্টিক এর গার্ড না দিয়ে স্টিলের দিতে পারতো ।
  • টায়ার অনেক চিকন ।
  • ৮৫ এর উপরে স্পিড উঠলে ভাইব্রেশন পাওয়া যায় ।
  • মাঝে মাঝে হাই স্পীড তুললে হ্যান্ডেল কাপে ।
  • বাইকটা হালকা হওয়ার কারণে তেমন গ্রিপ পাওয়া যায়না ।
 
যাই হোক বাইকটা আমার কাছে মোটা মুটি ভালো লাগছে অনেক স্মার্ট লুক প্রায় সব দিক দিয়ে ভালো। পরিশেষে আমি বলবো Ride Safe কারণ আপনি না থাকলে আপনার সখের বাইকটি থেকে কোনো লাভ হবে না।
 
 
বাইক এমন একটি জিনিষ যে যেমন ভাবে ব্যাবহার করবে সে তেমন ফল পাবে। তাই সবাই ট্রাফিক আইন মেনে চলবেন বাবা মায়ের কথা চিন্তা করে বাসা থেকে বের হবেন। বাইক রাইড করার আগে দোয়া পড়ে নিবেন। অবশ্যই অবশ্যই হেলমেট পরে বাইক রাইড করবেন।
 
suzuki hayate ep
 
ধন্যবাদ BikeBD.com কে আমাকে আমার বাইকটি নিয়ে কিছু লেখার সুযোগ করে দেওয়ার জন্য।
 

লিখেছেনঃ মোঃ সামিউল ইসলাম

 

আপনিও আমাদেরকে আপনার বাইকের মালিকানা রিভিউ পাঠাতে পারেন। আমাদের ব্লগের মাধ্যেম আপনার বাইকের সাথে আপনার অভিজ্ঞতা সকলের সাথে শেয়ার করুন! আপনি বাংলা বা ইংরেজি, যেকোন ভাষাতেই আপনার বাইকের মালিকানা রিভিউ লিখতে পারবেন। মালিকানা রিভিউ কিভাবে লিখবেন তা জানার জন্য এখানে ক্লিক করুন এবং তারপরে আপনার বাইকের মালিকানা রিভিউ পাঠিয়ে দিন articles.bikebd@gmail.com – এই ইমেইল এড্রেসে।