এপ্রিলিয়া জিপিআর ১৫০

This page was last updated on 14-Nov-2023 05:23pm , By Raihan Opu Bangla


এপ্রিলিয়া জিপিআর ১৫০



এপ্রিলিয়া জিপিআর ১৫০


বাংলাদেশের স্পোর্টবাইক সেগমেন্ট গত কয়েক বছর ধরে বেশ পরিপূর্ণ ছিল। লোকেরা কেবল ইয়ামাহা আর 15 ভি 3, সুজুকি জিএসএক্স-আর, হোন্ডা সিবিআর 150 আর বা লিফান কেপিআর সম্পর্কে কথা বলবে।


যাইহোক, সম্প্রতি এপ্রিলিয়া এবং কিওয়ের মতো কোম্পানিগুলিও এপ্রিলিয়া জিপিআর 150, এবং কিওয়ে আরকেআর 165 এর সাথে গেমটিতে প্রবেশ করেছে।


এখানে আমরা এপ্রিলিয়া জিপিআর ১৫০ কে বিভক্ত এবং ব্যাখ্যা করব। এপ্রিলিয়া ইতালিয়ান মোটরসাইকেল প্রস্তুতকারক। প্রাথমিকভাবে, এপ্রিলিয়া বাইরিং, স্কুটার এবং মোপেডের মতো বিরক্তিকর দুই চাকা তৈরি করে শুরু করেছিল। তারপর অবশেষে তারা উচ্চ ক্ষমতার মোটরসাইকেল তৈরি শুরু করে।


আজকাল Aprilia RSV4, এবং Tuono V4 এর মতো বাইকগুলি শহরে শব্দ করছে। কিন্তু বাংলাদেশে এই বাইকগুলো নিছক স্বপ্ন। ঘন ক্ষমতা সীমাবদ্ধতার কারণে (সিসি সীমা), আমরা শুধুমাত্র 165cc এর নিচে বা সমান বাইক পাই। অতএব, আমরা কেবল এপ্রিলিয়া জিপিআর 150 পাই। এপ্রিলিয়া রানার অটোমোবাইলস লিমিটেডের মাধ্যমে বাংলাদেশে ব্যবসা করে।

মূল বৈশিষ্ট্য:

এপ্রিলিয়া জিপিআর 150 একটি সম্পূর্ণ স্পোর্টবাইক। এপ্রিলিয়া জিপিআর ১৫০ সম্পূর্ণরূপে ফেয়ার্ড চ্যাসি পায়। বাইকটি দেখতে বিশাল, ঠিক গ্র্যান্ড প্রিক্স মোটরসাইকেলের মতো। বাইকটি সত্যিই প্রিমিয়াম ডিকাল এবং 54-শিরোনামের ব্যাজ নিয়ে আসে, যা এপ্রিলিয়া টিমস দ্বারা 54 টি শিরোপা জিতেছে।

বাইকের ডিকালগুলি সহজেই বাইকের অন্যতম সুন্দর ফ্যাক্টর। বাইকটির একটি বিশাল হেডলাইট ইউনিট রয়েছে যার একটি খুব ন্যূনতম এবং অনন্য লেজ বিভাগ রয়েছে।

এপ্রিলিয়া জিপিআর 150 এর একটি খুব হতাশাজনক আলো সেটআপ রয়েছে। হেড সেকশনে দুটি হ্যালোজেন বাল্ব রয়েছে, যা কোনোভাবেই এই প্রাইস সেগমেন্টের বাইক থেকে আশা করা যায় না।

তবে টেলিলাইট LED, যা একটি স্বস্তি। সূচকগুলিও LED, যা এটিকে আরও ন্যূনতম এবং আরও দৃশ্যমান করে তোলে। ডুয়েল হেডলাইট এলইডি হলে বাইকটি অনেক ভালো হতো। বাইকটিতে এলইডি পার্কিং ইউনিটও রয়েছে।

এপ্রিলিয়া জিপিআর ১৫০ একটি আরো হতাশাজনক উপকরণ ক্লাস্টারের সাথে আসে। ইন্সট্রুমেন্ট ক্লাস্টার হল একটি খুব ছোট LED ডিসপ্লেতে তথ্যের একটি ক্লাস্টার। ইন্সট্রুমেন্ট ক্লাস্টারে একটি এনালগ RPM কাউন্টার থাকে।

এলইডি ডিসপ্লেতে একটি স্পিডোমিটার, ওডোমিটার, ইঞ্জিনের তাপমাত্রা, জ্বালানী পরিমাপক এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় সূচক রয়েছে। সামগ্রিক এলইডি ইন্সট্রুমেন্ট ক্লাস্টারটি একটি ছোট অঞ্চলে আচ্ছাদিত, যা এটি পড়তে খুব কঠিন করে তোলে।

এপ্রিলিয়া জিপিআর 150 আন্তর্জাতিকভাবে তিনটি রঙে আসে। কোনটি:

1) লাল।

2) কালো

3) সাদা।

তিনটি বাইকই একই রকম ডিকাল নিয়ে আসে।

শারীরিক বৈশিষ্ট্য:

এপ্রিলিয়া জিপিআর ১৫০ -এর গড় আসন উচ্চতার চেয়ে ছোট হবে বলে আশা করা হচ্ছে, যা বেশিরভাগ স্পোর্টবাইকের মান পূরণ করে। এটি একটি আরামদায়ক যাত্রা নিশ্চিত করে। কিন্তু একটি ছোট সাইকেল মানে একটি নিম্ন সাইকেল। এই বাইকের গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স মাত্র 150 মিমি।

এটি বাংলাদেশের বেশিরভাগ স্পিড বাম্পে সমস্যা সৃষ্টি করবে। বাইকটিতে 15.4 লিটার জ্বালানি ক্ষমতাও রয়েছে, যা রাইডারকে বাইক রিফুয়েল করার কথা প্রায় ভুলে যেতে দেবে।

এপ্রিলিয়া জিপিআর 150 এর দৈর্ঘ্য, প্রস্থ এবং ওজন যথাক্রমে 1950 মিমি, 770 মিমি এবং 140 কেজি। বাইকের ওজন এবং অ্যারোডাইনামিক ডিজাইন বাইকটিকে স্থল এবং স্থিতিশীল থাকতে দেয়। বাইকটির গড় হুইলবেস প্রায় 1345 মিমি, যা বাইকটিকে কোণে স্থিতিশীল থাকতে দেবে এবং রাইডারদের কোণে আত্মবিশ্বাসের সাথে ঝুঁকতে দেবে।

ইঞ্জিন এবং ট্রান্সমিশন:

Aprilia GPR 150 একটি EFI (ইলেকট্রনিক ফুয়েল ইনজেকশন) ইঞ্জিন দিয়ে আসে। এর মানে এটির একটি অভ্যন্তরীণ ইসিইউ (ইলেকট্রনিক কন্ট্রোল ইউনিট) রয়েছে যা ইঞ্জিনের প্রয়োজনীয় জ্বালানির সঠিক পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করে। এই সিস্টেম ভাল জ্বালানী দক্ষতা বাড়ে। বাইকটি 4-স্ট্রোক, একক-সিলিন্ডার, 149.2cc এবং তরল-শীতল।

ইঞ্জিন 9750rpm এ 18BHP শক্তি এবং 7500rpm এ 14Nm টর্ক উৎপন্ন করে। বাইকটির শক্তি এবং টর্ক একটি স্পোর্টবাইকের জন্য বেশ উপযোগী, যা এটিকে সহজে ত্বরান্বিত করতে এবং সর্বোচ্চ গতি অর্জন করতে দেয়। বাইকটির গড় জ্বালানি অর্থনীতি প্রায় 35 কিলোমিটার হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

এপ্রিলিয়া জিপিআর 150 একটি মৌলিক ভেজা মাল্টি-প্লেট ক্লাচ সিস্টেমের সাথে আসে। কিন্তু বাইকটি স্লিপার ক্লাচ পায় না, যা বাইকের জন্য অনেক কিছু করতে পারত। বাইকটির সর্বোচ্চ গতি 135 কিলোমিটার হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

ব্রেক, সাসপেনশন এবং চাকা:

এপ্রিলিয়া জিপিআর 150 ডুয়াল ডিস্ক ব্রেক সহ আসে। সামনের অংশ 300 মিমি, যা একটি রেডিয়াল ক্যালিপার সহ আসে, যা বাংলাদেশে বাইকগুলির জন্য একটি বড় বিষয়।

সামনের এই বিশাল ডিস্কটি জরুরি ব্রেকিং পরিস্থিতিতে নিরাপদ এবং প্রাথমিক স্টপ নিশ্চিত করে। পিছনের ব্রেকটি 218 মিমি ডিস্কের সাথে আসে। দুঃখজনক ভাবে বাইকটি ABS বা CBS উভয়ের সাথে আসে না এবং এটি একটি মোটামুটি খারাপ।

এপ্রিলিয়া জিপিআর ১৫০ এর সামনের দিকে আপসাইড ডাউন (ইউএসডি) টেলিস্কোপিক কাঁটা এবং পিছনে মনো-শক রয়েছে। সামনের কাঁটাগুলি ঝাপসা রাস্তায় সমস্যা হবে, কিন্তু কোণে ঝুঁকে এটি খুব সহায়ক হবে। পিছনের মনো-শকটি ভাল পারফর্ম করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

বাইকের চাকাগুলো বেশ গড়। বাইকের সামনের চাকায় 100/80 সেকশন টায়ার রয়েছে, যা এই বাইকের জন্য বেশ ভাল এবং এটি ভাল গ্রিপ পেতে দেবে।

পিছনের চাকাটি 130/70 সেকশন টায়ার পায়, যা কিছুটা দুঃখজনক কারণ 140/70 সেকশনের টায়ারটি এটি আরও ন্যায়বিচার করত। টায়ারগুলি রাস্তায় ভালভাবে ধরে থাকবে।

জন্য সেরা:

এই বাইকটি টুরার এবং স্পিড প্রেমীদের জন্য। এই বাইকটি নতুনদের জন্য নয়, কারণ এটি নতুন আরোহীদেরকে অভিভূত করতে পারে। বাইকটি তাদের জন্য যারা পাগল গতি এবং দ্রুত ত্বরণ চান। যারা দ্রুত এবং মসৃণ মোটরসাইকেল চায় তাদের জন্য এই বাইকটি খুবই উপযোগী হবে।

এটি এমন লোকদের জন্যও যারা কম চালিত স্পোর্ট বাইক চালাচ্ছেন এবং আরও শক্তিশালী বাইকে আপগ্রেড করতে চান কিন্তু সীমিত বাজেট রয়েছে।

প্রতিযোগীরা:

এই বাইকটির কিছু উল্লেখযোগ্য প্রতিযোগিতা রয়েছে।

1) লিফান কেপিআর 150 ভি 2

2) সুজুকি জিক্সার এসএফ 2020।

3) তারো জিপি 1।

Best Bikes

Honda CB Hornet 160R

Honda CB Hornet 160R

Price: 169800.00

Honda CB Hornet 160R ABS

Honda CB Hornet 160R ABS

Price: 255000.00

Honda CB Hornet 160R CBS

Honda CB Hornet 160R CBS

Price: 212000.00

View all Best Bikes

Latest Bikes

Longjia v max 150

Longjia v max 150

Price: 430000.00

455500

455500

Price: 0.00

ZONTES ZT125-U1

ZONTES ZT125-U1

Price: 0.00

View all Sports Bikes

Upcoming Bikes

455500

455500

Price: 0.00

ZONTES ZT125-U1

ZONTES ZT125-U1

Price: 0.00

HYOSUNG GV250DRA

HYOSUNG GV250DRA

Price: 0.00

View all Upcoming Bikes