Vespa LML 150 মালিকানা রিভিউ লিখেছেন – আরবিকে আহনাব

আমি আমিনুর বিন আহনাব আমার বাইকার হওয়ার গল্প আপনাদের সাথে শেয়ার করতে চাই।  আমি বাইক চালানো শিখেছি ক্লাস 4 এ। আমি কয়েক বছর বাইক চালাচ্ছি কোন এক্সিডেন্ট রেকর্ড ছাড়া আল্লাহর রহমতে ভালো বাইক চালাই। আর আমার বাইক Vespa LML 150 বাইকটা আমার আব্বুর। মূলত এটি একটি স্কুটার। আমার আব্বুর অনেক শখের বাইক এটি। আব্বু মারা জাওয়ার পর বাইকটা আমি চালাই। এলাকার ভিতরেই বাইক চালাই কারন আমার ড্রাইভিং লাইসেন্স নাই। আর বাইক চালানোর রেকর্ড খারাপ না। হেলমেট প্রায় সবসময় ব্যবহার করা হয়। এইবার বাইক এর বিষয় এ আসি। বাইক টা আমাদের ইয়াং জেনারেশনদের কাছে বাইক টা ক্লাসিক একটা বাইক। এইটার মাইলেজ…

Review Overview

User Rating: 3.63 ( 2 votes)

আমি আমিনুর বিন আহনাব আমার বাইকার হওয়ার গল্প আপনাদের সাথে শেয়ার করতে চাই।  আমি বাইক চালানো শিখেছি ক্লাস 4 এ। আমি কয়েক বছর বাইক চালাচ্ছি কোন এক্সিডেন্ট রেকর্ড ছাড়া আল্লাহর রহমতে ভালো বাইক চালাই। আর আমার বাইক Vespa LML 150 বাইকটা আমার আব্বুর। মূলত এটি একটি স্কুটার।

vespa lml

আমার আব্বুর অনেক শখের বাইক এটি। আব্বু মারা জাওয়ার পর বাইকটা আমি চালাই। এলাকার ভিতরেই বাইক চালাই কারন আমার ড্রাইভিং লাইসেন্স নাই। আর বাইক চালানোর রেকর্ড খারাপ না। হেলমেট প্রায় সবসময় ব্যবহার করা হয়। এইবার বাইক এর বিষয় এ আসি। বাইক টা আমাদের ইয়াং জেনারেশনদের কাছে বাইক টা ক্লাসিক একটা বাইক। এইটার মাইলেজ আমি ভালো পাই ৩৫/৩৮ পার লিটার। বাইক এ মবিল ক্যাস্ট্রল এর টা ব্যবহার করি। আর অনেক সুন্দর স্মুথ বাইক চলে।

 Vespa LML 150 এর ইঞ্জিন নিয়ে কিছু কথাঃ

Vesps LML 150  এর ইঞ্জিনটি ২স্ট্রোক, সিঙ্গেল সিলিন্ডার বিশিষ্ট। এর ডিসপ্লেসমেন্ট হচ্ছে ১৪৯.৫৬ সিসি।  এই বাইকটি ৮ বি এইচ পি পর্যন্ত পাওয়ার উৎপাদন করতে পারে ৫,৫০০ আর পি এম এ। এই ইঞ্জিনটিতে  রয়েছে এয়ার কুলিং সিস্টেম। বাইকটিতে শুধুমাত্র কিক স্ট্যার্ট রয়েছে। বাইকটিতে ৪ স্পিড গিয়ার বক্স আছে এবং এর ক্লাচ সিস্টেম হচ্ছে ওয়েট প্লেট।

vespa lml 150

বাইক এর টায়ার এর সাইজ3.50-10। বাইকটির ওজন ১০১কেজি। ২সিটের আসন। বাইকটি ১৫০সিসি। বাইক টিতে তেল ভরে মাত্র ৬লিটার। বাইক টার আউট লুক ক্লাসিক এর মধ্য অনেক সুন্দর। বাইকটি ১৯৮৬ সালে তৈরি হয়।  আমরা সবাই জানি যে ১৯৯৯ সালে কোম্পানি এই মডেলের বাইক উৎপাদন বন্ধ করে দিয়েছে, তাই এর পার্টস পাওয়া একটু কষ্টকর। তারপরেও এখনো এই বাইকটি বাংলাদেশের রাস্তায় দেখা যায় এবং বেশ দাপটের সাথেই চলছে।

<<<< Vespa VXL 150 : Old Is Back >>>>


আমি বাইক এর সম্পর্কে এতো টুকু ধারনা দিতে পেরেছি এর থেকে বেশি আমার জানা নাই সব ভাইয়ারা আমারে ছোটো ভাই হিসেবে ক্ষমা চোখে দেখবেন। ভুল ত্রুটি হইলে সরি ভাইয়ারা। আমার থেকে আমার বাইক এর বয়স বেশি। কারন আব্বুর বাইক।

আর ছোট মানুষ হিসেবে একটা কথা বলতে চাই আমার বাইকার বড় ভাইদের যে ভাই আপনারা প্রতিদিন কেও অফিস,কলেজ,ভার্সিটি বিভিন্ন জায়গা তে যাতায়াত করে থাকেন।একটা কথা মাথাই রাখবেন যে আপনার জন্য আপনার আপনজনেরা বাসায় অপেক্ষা করছে। আপনার যদি কিছু হয় তাদের কি হবে একবার ভেবে দেখবেন। তাই ভাইয়ারা সবাই সাবধানে বাইক রাইড করবেন,হেলমেট এবং সেফটি গার্ড ব্যবহার করবেন । ধন্যবাদ ।

 

লিখেছেনঃ আরবিকে আহনাব

 

আপনিও আমাদেরকে আপনার বাইকের মালিকানা রিভিউ পাঠাতে পারেন। আমাদের ব্লগের মাধ্যেম আপনার বাইকের সাথে আপনার অভিজ্ঞতা সকলের সাথে শেয়ার করুন! আপনি বাংলা বা ইংরেজি, যেকোন ভাষাতেই আপনার বাইকের মালিকানা রিভিউ লিখতে পারবেন। মালিকানা রিভিউ কিভাবে লিখবেন তা জানার জন্য এখানে ক্লিক করুন এবং তারপরে আপনার বাইকের মালিকানা রিভিউ পাঠিয়ে দিন articles.bikebd@gmail.com – এই ইমেইল এড্রেসে।

About Arif Raihan opu

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*