Suzuki GSX-R1000 সুপার বাইক এখন বাংলাদেশে – Rancon Motorbikes Ltd

Rancon Motorbikes Ltd বাংলাদেশে নিয়ে এসেছে Suzuki GSX-R1000 । যদিও বাইকটি তারা নিয়ে এসেছিল ঢাকা বাইক শো ২০২০ এ শোতে ডিসপ্লে করার জন্য । তবে করোনা ভাইরাস এর জন্য আগামী অগাস্ট মাস ২০২০ পর্যন্ত ঢাকা বাইক শো পেছানো হয়েছে ।

suzuki-gsx-r1000

Rancon Motorbikes Ltd সব সময় বাংলাদেশে তাদের সুপার বাইক গুলো নিয়ে আসে । আমাদের মনে আছে তারা গত ৪র্থ ঢাকা বাইক শো ২০১৮ তে তারা নিয়ে এসেছিল  Suzuki Hayabusa এবং গত বছর ৫ম ঢাকা বাইক শো ২০১৯ এ শো করেছে Suzuki Intruder 1800

Click Here For Suzuki Hayabusa First Impression Video

Suzuki GSX-R1000

অনেক বড় গল্প, তবে ছোট্ট করে যদি বলি, এটি একটি সুপার বাইক! বাইকটির ইঞ্জিন থেকে 199 BHP @ 13,200 RPM এবং 118 NM of Torque @ 10,800 RPM উৎপন্ন করতে সক্ষম। ইঞ্জিনটি ফোর স্ট্রোক, চারটি সিলিন্ডার, লিকুইড কুল, DOHC এবং ১৬টি বাল্ব যুক্ত ইঞ্জিন । যে অবাক হবেন, বাইকটিতে দেয়া হয়েছে Fuel Injection(FI) সিস্টেম যার কাজ হচ্ছে ১৬লিটারের ফুয়েল ট্যাঙ্ক থেকে ইঞ্জিনে ফুয়েল নিয়ে যাওয়া ।

এই বাইকটি ওজনে প্রায় ২০৩ কেজি এবং এর গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স হচ্ছে ১৩০মিমি, যা বাংলাদেশের রাস্তার জন্য একদম ই ভাল নয় । বাইকটির স্যাডেল হাইট ৮২৫মিমি, আর আপনি যদি মেজারমেন্ট টেপ ব্যবহার করে থাকেন তবে দেখতে পাবেন যে বাইকটি দৈর্ঘ্যে ২০৭৫মিমি, প্রস্থে ৭১০মিমি এবং ১১৫০মিমি হচ্ছে এর উচ্চতা ।

suzuki-gsx-1000r-top-speed

Suzuki GSX-R1000 বাইকটিতে দেয়া হয়েছে ১৭ ইঞ্চি এর এলয় রিম, সাথে দেয়া হয়েছে ১২০ সেকশন ফ্রন্ট টায়ার । অপর দিকে রেয়ারে দেয়া হয়েছে ১৯০ সেকশন রেয়ার টায়ার। সাসপেশন এর ক্ষেত্রে দেয়া হয়েছে ৪৩মিমি Showa USD ফর্ক, যা রাইডিং কন্ডিশনের উপর এডজাস্ট করে নেয়া যায়। আর রেয়ার সাসপেনশন হচ্ছে মনো-শক, কয়েল স্প্রিং এবং অয়েল ডাম্পড।

এছাড়া সামনের দিকে দেয়া হয়েছে Brembo 4 piston টুইন ডিস্ক ব্রেক এবং Nissin one piston সিঙ্গেল ডিস্ক ব্রেক, আর দুটি ব্রেকেই দেয়া হয়েছে এন্টিলক ব্রেকিং সিস্টেম (এবিএস)। বাইকটির সামনে দেয়া হয়েছে এলইডি হেডলাইট এবং এর পাশেই রয়েছে ফিনস বা যা দিয়েছে ইঞ্জিনে বাতাস প্রবাহিত নিশ্চত করে।

suzuki-gsx-r1000-price

ইউরোপিও এবং জাপানিজ ম্যানুফ্যাকচারের এগ্রিমেন্ট এর কারনে বাইকটি ৬ষ্ঠ গিয়ারে ৩০০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টা স্পিড তুলতে সক্ষম কিছু কিছু ওয়েব সাইটে দেয়া হয়েছে এবং বাইকটির প্রতি লিটারে মাইলেজ দেবে ১৫-১৮ কিলোমিটার।

বাংলাদেশে অনেক নিয়মের কারণে হয়ত আমরা বাইকটি রাইড করতে সক্ষম হবো না, তারপরও পৃথিবীর অন্যতম জনপ্রিয় বাইকটি বর্তমানে বাংলাদেশে রয়েছে। এটা অনেক বাইকপ্রেমীদের জন্য একটা আনন্দের সংবাদ!

About Arif Raihan opu

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*