Honda XR150L ফিচার রিভিউ – ডুয়েল স্পোর্টস মোটরসাইকেল

Honda XR150L ছোট ক্যাপাসিটির স্ট্রীট লিগ্যাল ও ডুয়েল স্পোর্টস বাইক । বলা যায় যে, বাইকটি মোটরসাইকেল কমিউনিটির সকলের কাছেই অনেক জনপ্রিয়তা পেয়েছে । তাই আজ আমরা আপনাদের সামনে তুলে ধরব Honda XR150L এর ফিচার রিভিউ । Honda XR150L – ওভারভিউ Honda XR সিরিজটি এমন একটি সিরিজ, যেই সিরিজে রয়েছে কিংবদন্তি সব অফ-রোড মোটরসাইকেল এবং ভিন্ন ভিন্ন ক্যাপাসিটির ফোর স্ট্রোক ডুয়েল স্পোর্টস বাইক । এই সিরিজের মুল লক্ষ্য ছিল ইকোনমিক কিন্তু কম্পেটিটিভ ফিচার্স সহ মোটরসাইকেল তৈরি করা । এছাড়া হোন্ডার অন্যতম লিজেন্ডারি সিরিজ হচ্ছে Honda XL, তবে ১৯৮৫ সালে প্রথম বারের মত সবার সামনে নিয়ে আসা হয় প্রথম XR100R । এই…

Review Overview

User Rating: Be the first one !

Honda XR150L ছোট ক্যাপাসিটির স্ট্রীট লিগ্যাল ও ডুয়েল স্পোর্টস বাইক । বলা যায় যে, বাইকটি মোটরসাইকেল কমিউনিটির সকলের কাছেই অনেক জনপ্রিয়তা পেয়েছে । তাই আজ আমরা আপনাদের সামনে তুলে ধরব Honda XR150L এর ফিচার রিভিউ ।

[ 3 ]

honda xr150l feature review

Honda XR150L – ওভারভিউ

Honda XR সিরিজটি এমন একটি সিরিজ, যেই সিরিজে রয়েছে কিংবদন্তি সব অফ-রোড মোটরসাইকেল এবং ভিন্ন ভিন্ন ক্যাপাসিটির ফোর স্ট্রোক ডুয়েল স্পোর্টস বাইক । এই সিরিজের মুল লক্ষ্য ছিল ইকোনমিক কিন্তু কম্পেটিটিভ ফিচার্স সহ মোটরসাইকেল তৈরি করা ।

এছাড়া হোন্ডার অন্যতম লিজেন্ডারি সিরিজ হচ্ছে Honda XL, তবে ১৯৮৫ সালে প্রথম বারের মত সবার সামনে নিয়ে আসা হয় প্রথম XR100R ।

এই Honda XR বাইক সিরিজটি ৫০সিসি থেকে ৬৫০সিসি পর্যন্ত সকল ধরনের ক্যাপাসিটির মোটরসাইকেল রয়েছে । বেশির ভাগ মডেল গুলো হচ্ছে এয়ার কুল্ড এবং কার্বুরেটর, তবে কয়েকটি মডেলের রয়েছে ইঞ্জিন কুলিং সিস্টেম ।

[ 2 ]

যাইহোক, এই মডেলের দুটি সাব মডেল রয়েছে, সেগুলো হচ্ছে R এবং L । R সিরিজটি তৈরি করা হয়েছে প্রতিযোগীতার জন্য এবং L সিরিজটি তৈরি করা হয়েছে স্ট্রীট লিগ্যাল ফিচার দিয়ে ।

এখন Honda XR150L বাইকটি XR সিরিজের একদম নতুন মোটরসাইকেল, যা রিলিজ করা হয়েছে ২০১৪ সালে । XR125L বাইকটি ২০০৩ সাল থেকে তাদের যাত্রা শুরু করে এবং এতে দেয়া হয়েছে Honda CG125 এর ইঞ্জিন, যা নতুন এই XR150L ১২৫সিসি বাইকটিকে রিপ্লেস করবে ।

এখন এই নতুন XR150L বাইকটি নিয়ে আসা হয়েছে সম্পূর্ন ফিচার্স, স্পোর্টি, ও আপডেটে ডিজাইন সমৃদ্ধ করে ।

honda xr150l headlamp front look

Honda XR150L – ডুয়েল স্পোর্টস

হোন্ডা এক্সআর১৫০এল বাইকটি এক কথায় ডুয়েক স্পোর্টস বাইক, অনেক জায়গা তে এই বাইকটির নাম হচ্ছে ফার্ম বাইক । বাইকটি অফ রোড বা অন রোড দু জায়গাতেই সমান দক্ষতার সঙ্গে রাইড করতে সক্ষম । বাইকটি স্ট্রীট লিগ্যাল হিসেবে এতে সব ধরনের ফিচার যুক্ত করা হয়েছে ।

[ 1 ]

ইরোগোনমিক্স এর ক্ষেত্রে, বাইকটি পুরোপুরি ভাবে অফরোড বাইকের ক্যারেক্টার ধরে রেখেছে । এছাড়া এর ট্যুরিং ও ক্যারিং ক্যাপাসিটিও দারুন ।

তাই বলা যায় যে, বাইকটি পুরোপুরি ডার্ট বাইক বা স্ট্রীট লিগ্যাল বাইক নয় । এটি ডিজাইন করা হয়েছে মাঝামাঝি কিছুতে, যা ডুয়েল স্পোর্টস ।

বাইকটির অনেক টাই নেকেড প্রোফাইল যুক্ত, এর সাথে রয়েছে সেমি-নেকেড ফ্রেম, কম্পেক্ট বিকিনি প্যানেল, এবং উচু হুইল ফেন্ডার্স । হুইল ও ফেন্ডারের দুরত্ব কাছাকাছি পর্যায়ের, এমনকি সাসপেনশনও একই রকম ট্রাভেল করে । অপর দিকে এক্সহস্টও উচু করে রেয়ার টেইল এর দিকে সমান্তরালে দেয়া হয়েছে ।

2019 honda xr150l look design

বাইকটি সামনের দিক থেকে অনেক আইকনিক, মনে হবে এটি XR’ এর থেকে কিছুটা বড় এবং CRF’s থেকে কপি করা হয়েছে । এর হেডল্যাম্পটি হুইল ফেন্ডারের উপর বসানো হয়েছে যা CRF250L বা CRF150L এর ক্লোন হিসেবে ধরা যায় ।

তাই বলা যায় যে, বাইকটি আইক্যাচিং অর্থাত প্রথম দেখাতে আকর্ষন করবে । অপর দিকে ওডো খুবই সাধারন ভাবে বসানো হয়েছে । এটি সিম্পল ও কম্পেক্ট । এতে এনালগ ও লিমিটেড কিছু ফিচার্স দেয়া হয়েছে ।

এবার আসা যাক ফুয়েল ট্যাঙ্কের দিকে, রেগুলার ডার্ট বাইকের চেয়ে এর ফুয়েল ট্যাঙ্ক কিছুটা বড়, তবে স্পোর্টি এবং কম্পেক্ট ডার্ট ফেন্ডার যুক্ত । বাইকটির সিট সিঙ্গেল সিট, বেশ প্রশস্ত এবং কার্ব ডিজাইন করা । সবশেষে, টেইল বা রেয়ার এর দিকে অনেক কম্পেক্ট করে তৈরি করা এর সাথে হালকা ফেন্ডার এবং তীক্ষ্ম টেইল লাইট, ব্লিংকার এবং বড়সড় লাগেজ র‍্যাক ।

তাই বলা যায় যে, Honda XR150L বাইকটি সাজানো হয়েছে খুব সুন্দর ভদ্র লুকসের সাথে একটি স্পোর্টি ডিজাইন দিয়ে । এই ডিজাইন নিয়ে বলা যায়, বাইকটি অফ রোড ওরিয়েন্টেড হলেও সব জায়গাতেই দারুন ভাবে রাইড করা যায় । বাইকটির ডিজাইন, স্পোর্টি ও লুকস সব মিলিয়ে এর এটি যে উদ্দেশ্যে তৈরি করা হয়েছে, তা সফল ।

honda xr150l frame wheel brake suspension system

Honda XR150L – ফ্রেম, হুইল, ব্রেক ও সাসপেনশন সিস্টেম

হোন্ডা এক্সআর১৫০এল বাইকটি ছোট ক্যাপাসিটির হালকা একটি বাইক । বাইকটি প্রতিদিনের কমিউটিংকে ফোকাস করে তৈরি করা হয়েছে । এর ফ্রেম হচ্ছে স্টিল টিউব সেমি ক্রেডেল ফ্রেম । বাইকটি কম্পেক্ট ডিজাইন একে লোয়ার স্যাডেল ও হাই গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স দিয়েছে ।

ফ্রেমের ব্যাপারে আরও বলা যায়, যে বাইকটির ফ্রেম অন রোড বা অফ রোডের যেকোন অবস্থায় দারুন স্ট্যাবিলিটি প্রদান করে থাকে । এই ক্রেডেল ফ্রেমটি ইঞ্জিনের ভাইব্রেশন কমিয়ে দিয়ে রাইডিং কে আরও স্মুথ করে ।

XR150L এর হুইল গুলো সব জায়গাতে রাইড করার জন্য উপযোগী । যদিও বাইকটি সিরিয়ারস ভাবে ডার্ট ফোকাসড নয় আবার স্ট্রীট লিগ্যাল অরিয়েন্টেডও নয় । এন্ট্রি লেভেল রাইডারদের জন্য বাইকটি রাইড করা সহজ হবে ।

honda xr150l top speed fuel economy

বাইকটির সামনের দিকে দেয়া হয়েছে ১৯ ইঞ্চি এবং রেয়ার হুইল হচ্ছে ১৭ ইঞ্চি । হুইল গুলো টিউভ টাইপ স্পোক হুইল টায়ার । এই টায়ার গুলো ফিট করা হয়েছে স্পোক রিম ও সাথে ডুয়েল স্পোর্টস টায়ার । টায়ার গুলো প্রতিদিনের কমিউটিং বা অফ রোডে রাইডে ভাল ফিডব্যাক দেবে ।

এবার আসা যাক ব্রেকিং সিস্টেম এর ক্ষেত্রে, XR150L বাইকটির সামনের দিকে দেয়া হয়েছে হাইড্রোলিক ডিস্ক ব্রেকিং সিস্টেম । রেয়ার টাইপ হচ্ছে কনভেনশনাল ড্রাম টাইপ । এর সাথে যুক্ত করা হয়েছে আপ রাইট টেলিস্কোপিক ফর্ক সাসপেনশন, অপরদিকে রেয়ার হচ্ছে মনোশক ।

ফ্রন্ট সাসপেনশ এর ব্যারেল গুলো রাবার প্রোটেক্টেড এবং আর একটি ফ্ল্যাক্সিব্যাল রাবার গাইড দেয়া হয়েছে কাদ ও ধুলাবালি থেকে রক্ষা করার জন্য । রেয়ার এর দিক থেকেও ভাল ভাবে সুরক্ষা দেবে । এর সেট আপটি ফাইভ স্টেপ এডজাস্টেবল সেট আপ ।

সাসপেনশনের ক্ষেত্রে ফ্রন্ট এবং রেয়ার সাসপেনশন হচ্ছে লং ট্রাভেল সাসপেনশন । ফ্রন্ট সাসপেনশন হচ্ছে ১৮০মিমি এবং রেয়ার সাসপেনশন হচ্ছে ১৫০মিমি । তাই বলা যায় যে, বাইকটি ফ্রেম, ব্রেক, হুইল এবং সাসপেনশন সহ সব দিক থেকে এটি একটি ডুয়েল পারপাস মোটরসাইকেল ।

honda xr150l engine performance feature

Honda XR150L – রাইডিং ও হ্যান্ডেলিং

XR150L বাইকটি বডি ডাইমেনশন, হ্যান্ডেলিং এবং কন্ট্রোলিং এর ক্ষেত্রে অনেক বেশি রাইডার বান্ধব । মোটরসাইকেলটি ওজনে হালকা, লোয়ার স্যাডেল, এবং ঘাড় প্রশস্ত হবার কারনে সহজে কন্ট্রোল করা যায় । হুইল, ব্রেক ও সাসপেনশন এর কারনে বাইকটি যেকোন জায়গাতে খুব সহজে রাইড করা যায় ।

বাইকটির রাইডিং পজিশন আপরাইট, এর হ্যান্ডেল বার আপরাইট পজিশন এবং অন্যান্য কন্ট্রোল লিভার গুলো আপরাইট পজিশনে দেয়া হয়েছে । এর পিলিয়ন সিটটি অনেক বেশি প্রশস্ত । এছাড়া পিছনের ক্যারিয়ার এবং ফুটপেগ কম্ফোর্টেবল পজিশনে দেয়া হয়েছে । গৃহস্থালীর জিনিস পত্র বা ল্যাগেজ সহজেই ক্যারি করা যায় ।

এর সাথে আরও যুক্ত করা যায় যে, বাইকটি স্ট্রীট লিগ্যালের সব ক্যারেকটার ধরে রেখেছে । তাই যেকোন সময়, যেকোন জায়গাতে রাইড করা আরামদায়ক ও সহজ । মোটরসাইকেলটি ভিন্ন ভিন্ন জায়গাতে ভিন্ন ভিন্ন সময়ে রাইড করা যায় ।

honda xr150l engine performance power torque specification

Honda XR150L – ইঞ্জিন ও পারফর্মেন্স

হোন্ডা এক্সআর১৫০এল বাইকটি XR125L বাইকটির রিপ্লেসমেন্ট হিসেবে নিয়ে আসা হয়েছে একটি বড় ইঞ্জিন দিয়ে । এখানে ব্যবহার করা হয়েছে ১৪৯.২সিসি, এয়ার কুল্ড, সিঙ্গেল সিলিন্ডার, ফোর-স্ট্রোক, OHC , দুই ভাল্ব বিশিষ্ট ইঞ্জিন । যেটি মেকানিক্যালি XR125L এর থেকে আপ গ্রেড করা হয়েছে ।

XR150L এর ইঞ্জিনের ফিচার হচ্ছে 57.3mm/57.8mm স্কয়ার ডিসপ্লেসমেন্ট ইঞ্জিন । এর সাথে রয়েছে অফসেট ক্র্যাঙ্ক শ্যাফট, রোলার রকার, রিডিজাইনড ব্যালেন্সার, লাইটার পিস্টন ।

ইঞ্জিনের ওয়েল সার্কুলেশন সিস্টেম নতুন ভাবে ডিজাইন করা হয়েছে আরও ভাল কুলিং ও লুব্রিকেশন এর জন্য । তাই বাইকটির মোটর লো মেইন্টেনেন্স ক্যারেকটার, রিলায়্যাবিলিটি, ডিউরেবিলিটি আগের থেকে অনেক বেড়ে গিয়েছে ।

honda xr150l price in bangladesh

নতুন এই XR150L ইঞ্জিন আরও বেশি রিফাইন্ড ও আধুনিক স্ট্যান্ডার্ড ইমারশন যুক্ত । এটা এর পারফর্মেন্স কে আরও বাড়িয়ে তুলেছে ও স্মুথ করেছে । ফুয়েল ইকোনমি লেভেল আরও বেড়ে গিয়েছে । এর ইঞ্জিনের বিশেষত্ব হচ্ছে এটি বুলেটপ্রুফ ইঞ্জিন । যা পৃথিবী জুড়ে হোন্ডার অনেক মডেলে পরিক্ষা করা হয়েছে । তাই পারফর্মেন্স অনেক কোয়ালিফাইড ।

যাইহোক, 9.5:1 কম্প্রেশন ২০১৯ এর এই মডেলটি সর্বোচ্চ 11.7HP এবং 12.1NM টর্ক উৎপন্ন করতে সক্ষম । এখানে আমরা উল্লেখ করতে চাই যে, ইঞ্জিনের পারফর্মেন্স এরিয়া বা এলাকা, পরিবেশ ও তেল অনুযায়ী কম বেশি হতে পারে ।

এরপর ইঞ্জিনটি পুরোটাই CDI ইগনিশ দিয়ে সেট করা হয়েছে । ইঞ্জিনে ফুয়েল সাপ্লাই সিস্টেম হচ্ছে কার্বুরেটর । সবশেষে, ইঞ্জিনের সাথে ৫ স্টেপ গিয়ারবক্স যুক্ত করা হয়েছে । এর সাথে রয়েছে কিক ও সেফল স্টার্ট সিস্টেম । তো আপনারা দেখতেই পাচ্ছেন XR150L পুরোপুরি ভাবে আধুনিক ও কনভেনিয়েন্ট ফিচার দ্বারা সমৃদ্ধ করা হয়েছে ।

2019 honda xr150l specification feature

2019 Honda XR150L – স্পেসিফিকেশন

SpecificationHonda XR150L
EngineSingle Cylinder, Four Stroke, Air Cooled, OHC 2-Valve Engine
Displacement149.2cc
Bore x Stroke57.3mm x 57.8mm
Valve SystemOHC, 2 Valve
Compression Ratio9.5:1
Maximum Power11.7HP (8.7kW) @8,000RPM
Maximum Torque12.1Nm(1.27 kgf.m) @6,000RPM
Fuel SupplyCarburator
IgnitionCDI
Starting MethodKick & Electric
Clutch TypeWet, Multiple-Disc
LubricationWet Sump
Transmission5-Speed; 1-N-2-3-4-5
Dimension
Frame TypeSemi-Double Cradle Frame
Dimension (LxWxH)2,100mm x 820mm x 1,126mm
Wheelbase1,360mm
Ground Clearance245mm
Saddle Height825mm
Weight129Kg (Dry: 122Kg)
Fuel Capacity12 Liters
Engine Oil1.0 Liters
Wheel, Brake & Suspension
Suspension (Front/Rear)Telescopic Fork Suspension, 180mm Travel

/ Mono Suspension, 150mm Travel

Brake system (Front/Rear)240mm Hydraulic Disk

/ 130mm Drum Brake

Tire size (Front / Rear)Front: 90/90-19 M/C 52P

Rear: 110/90-17 M/C 60P

Both Tube Type

Battery12V-5Ah, MF
Headlamp35W, 12V Bulb
SpeedometerAnalog

*All the specifications are subject to change upon company rules, policy, offer & promotion. BikeBD is not liable for the changes.

Honda XR150L – ফিচার রিভিউ

তো পাঠকেরা, বিস্তারিত আলোচনার পর আপনারা দেখতেই পাচ্ছেন যে Honda XR150L একটি দারুন ডুয়েল ট্রেইন মোটরসাইকেল । এটাকে এমন ভাবে তৈরি করা হয়েছে যাতে করে আপনি প্রতিদিনের কমিউটিং সহ শহর বা গ্রাম্য বা পাহাড়ী এলাকাতে দারুন ভাবে রাইড করতে পারেন ।

আরও বলা যায়, রাইডিং রোমিং ও উইকেন্ড এ হাইকিং বা আনপ্রেডিক্টেবল ট্রেইনের ক্ষেত্রে এই বাইকটি আপনার সঙ্গী হবে । পরিশেষে এটাই যে, এই বাইকটি একটি পূর্নাঙ্গ ডুয়েল পারপাস মোটরসাইকেল ।

About Arif Raihan opu

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*