Bajaj Pulsar 150 Twin Disc । দাম কমিয়েছে উত্তরা মোটরস লিমিটেড

দাম কমলো Bajaj Pulsar 150 Twin Disc মোটরসাইকেলের । উত্তরা মোটরস লিমিটেড সম্প্রতি বাজাজ পালসার ১৫০ টুইন ডিস্ক মোটরসাইকেলের দাম কমিয়ে এনেছে । বাজাজ পালসার ১৫০ বাইকটি বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশি বিক্রি হওয়া মোটরসাইকেলের মধ্যে অন্যতম । এর সাথে টুইন ডিস্ক ও আরও নতুন ফিচার যুক্ত হওয়াতে বাইকটি বাংলাদেশের পালসার লাভারদের কাছে আরও জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে । বাজাজ পালসার ১৫০ টুইন ডিস্ক এর দাম ছিল ১৮৬,৯০০ টাকা, দাম কমানো হয়েছে ৪,০০০ টাকা । তাই দাম কমার পর বর্তমানে বাইকটির দাম হচ্ছে ১৮২,৯০০ টাকা । নতুন এই দামটি ১০ অক্টোবর থেকে ৩১ অক্টোবর ২০১৯ পর্যন্ত চলবে । বাজাজ নতুন এই পালসার ১৫০…

Review Overview

User Rating: 4.8 ( 1 votes)

দাম কমলো Bajaj Pulsar 150 Twin Disc মোটরসাইকেলের । উত্তরা মোটরস লিমিটেড সম্প্রতি বাজাজ পালসার ১৫০ টুইন ডিস্ক মোটরসাইকেলের দাম কমিয়ে এনেছে । বাজাজ পালসার ১৫০ বাইকটি বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশি বিক্রি হওয়া মোটরসাইকেলের মধ্যে অন্যতম । এর সাথে টুইন ডিস্ক ও আরও নতুন ফিচার যুক্ত হওয়াতে বাইকটি বাংলাদেশের পালসার লাভারদের কাছে আরও জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে ।

bajaj pulsar 150 twin disc

বাজাজ পালসার ১৫০ টুইন ডিস্ক এর দাম ছিল ১৮৬,৯০০ টাকা, দাম কমানো হয়েছে ৪,০০০ টাকা । তাই দাম কমার পর বর্তমানে বাইকটির দাম হচ্ছে ১৮২,৯০০ টাকা । নতুন এই দামটি ১০ অক্টোবর থেকে ৩১ অক্টোবর ২০১৯ পর্যন্ত চলবে ।

বাজাজ নতুন এই পালসার ১৫০ টুইন ডিস্ক বাইকটি লঞ্চ করার সময় অনেক নতুন ফিচার যুক্ত করেছে এবং গ্রাফিক্স ডিজাইনেও অনেক পরিবর্তন করা হয়েছে ।

Bajaj Pulsar150 Twin Disc In Bangladesh – Bajaj Pulsar UG5

Bajaj Pulsar 150 Twin Disc – ফিচার্স

  • বাইকটিতে দেয়া হয়েছে মোট ৩৭মিমি এর ফ্রন্ট ফর্ক
  • হ্যান্ডেলবারের পজিশন চেঞ্জ করা হয়েছে সামনের সাসপেনশন অনুযায়ী
  • স্পিডোমিটারের ক্ষেত্রেও এসেছে পরিবর্তন । স্পিডোমিটারে দেয়া হয়েছে নতুন ব্লু কালারের ব্যাকলাইট অন্যদিকে ওডোমিটার আগের মতই রাখা হয়েছে ।
  • পালসার ১৫০ টুইন ডিস্ক বাইকটিতে কোন কিক স্টার্ট সিস্টেম রাখা হয়নি । ইঞ্জিনের ক্র্যাঙ্ক কেসের ক্ষেত্রেও পরিবর্তন আনা হয়েছে ।
  • এখন নতুন এই বাইকটিতে দেয়া হয়েছে ২৬০মিমি ফ্রন্ট ডিস্ক ব্রেক ।
  • রেয়ার ডিস্ক ব্রেক হচ্ছে ২৩০মিমি ।
  • সেমি রাউন্ড বার সুইং আর্ম । যা এর হুইলবেস কে অনেক বড় করে তুলেছে ।
  • এই বাইকটির ফ্রেন্ট টায়ার হচ্ছে ৯০ সেকশন এবং রেয়ার টায়ার হচ্ছে ১২০ সেকশন ।
  • সিটিং পজিশনেও পরিবর্তন আনা হয়েছে । ফুট পেগ কিছুটা পেছনের এর দিকে দেয়া হয়েছে ।
  • সিঙ্গেল আর্ম গিয়ার লিভার ।
  • নতুন এক্স-হস্ট মাফলার ।
  • ফুল চেইন কভারও পরিবর্তন করা হয়েছে এবং সেখানে বড় চেইন স্পোকেট এর সাথে কাভার দেয়া হয়েছে ।
  • স্প্লিট সিট এবং ডাবল হর্ন গ্রেইব রেইল ।
  • ডিফারেন্ট কালার স্কিম ।
  • ড্রাই ওয়েট অনুযায়ী বাইকটির ওজন ১৪৪ কেজি ।
  • ১৫ লিটার ফুয়েল ট্যাঙ্ক ক্যাপাসিটি ।

bajaj pulsar 150 twin disc specification

সিঙ্গেল ডিস্ক ব্রেক ভার্সনের ইঞ্জিন ও নতুন টুইন ডিস্ক ব্রেক ভার্সনের ইঞ্জিনের তেমন কোন পার্থক্য নেই । এই সিঙ্গেল সিলিন্ডার, এয়ার কুল্ড, ২ ভাল্বস, DTSi ইঞ্জিন থেকে ১৩.৮ বিএইচপি ও ১৩.৪ এনএম টর্ক ক্ষমতা উৎপন্ন হয় । ইঞ্জিনের সাথে একটি ৫ স্পিড গিয়ার বক্স যুক্ত করা হয়েছে । তবে মানুষের সবচেয়ে বড় প্রশ্ন হচ্ছে যে কেন বাজাজ পালসার ১৫০ বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশি বিক্রি হওয়া ১৫০সিসি মোটরসাইকেল । আমরা তার কিছু কারন খুজে পেয়েছি ।

  • এর লুকস ও ডিজাইন বাইকারদের আকৃষ্ট করে ।
  • স্পেয়ার পার্টস এভেইলেবল ।
  • অন্যান্য ব্র্যান্ডের চেয়ে স্পেয়ার পার্টেসের দাম কম ।
  • ৪০০+ ডিলারশপ থাকার কারনে বাইক সার্ভিসের ক্ষেত্রে তেমন কোন ঝামেলা হয় না ।

উত্তরা মোটরস লিমিটেড আশা করছে যে, দাম কমার কারনে বাংলাদেশের অনেক বাইকার পালসারের প্রতি আকৃষ্ট হবে এবং পালসার লাভার হয়ে উঠবে । ধন্যবাদ ।

About Arif Raihan opu

One comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*