বাজাজ ইন্ডিয়াতে নিয়ে আসলো 110cc তে ABS!

বাজাজ ইন্ডিয়াতে ২০২১ সালে নতুন ফিচার্সসহ লঞ্চ করেছে Bajaj Platina 110 H-Gear ABS। নতুন এই প্লাটিনা বাইকটি তে সবাইকে অবাক করে দিয়ে তারা যুক্ত করেছে Anti-lock Braking System (ABS)। এটা সত্যি যে বাজাজ এই বাইকটি কমিউটার সেগমেন্টের প্রথম বাইক যেটা তে এই প্রযুক্তি যুক্ত করা হয়েছে। চলুন দেখা যাক এই Bajaj Platina 110 H-Gear ABS বাইকটিতে কি কি নতুন ফিচার্স যুক্ত করা হয়েছে।

bajaj platina 110 h-gear abs launch in india price in bangladesh

Bajaj Platina 110 H-Gear ABS – গ্রাফিক্স আপডেট

নতুন এই ভার্সনটির গ্রাফিক্স ও কালারে কিছুটা ভেরিয়েশন নিয়ে আসা হয়েছে। যেমন নতুন ভার্সনটির গ্রে কালারের সাথে কালো এবং সাদার কিছুটা মিশ্রণ যুক্ত করা হয়েছে। তবে লক্ষণীয় বিষয় হচ্ছে এই যে, বাইকটি এলয় রিম সম্পূর্ন সাদা রং করা হয়েছে। এছাড়া ABS সহ আরও নতুন কিছু ফিচার্স ও গ্রাফিক্স যুক্ত করা হয়েছে। যদিও বাইকটি আগের ভার্সনের মত একই রয়েছে।

Bajaj Platina 110 H-Gear ABS – ফিচার্স আপডেট

এই বাইকটির এলয় রিম হুইল গুলো বাজাজের প্রিমিয়াম সেগমেন্ট বা স্পোর্টস সেগমেন্ট থেকে নেয়া হয়েছে। বিশেষ ভাবে Pulsar RS and NS এর বাইক থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে এর রিম গুলো ডিজাইন করা হয়েছে। নতুন এই প্লাটিনার ABS এবং রেয়ার শক এবজভার এর কালার গোল্ডেন কালার করা হয়েছে।

bajaj platina 110 h-gear abs tire rim front suspension

এছাড়া বাইকটির ইন্ডিকেটর গুলো নতুন ভাবে ডিজাইন করা হয়েছে। এখন ইন্ডিকেটর গুলো বর্তমানে আরও ছোট, তীক্ষ্ম এবং সুন্দর হয়েছে দেখতে। তবে বাইকটির ড্যাশবোর্ড পুরোটাই রাখা হয়েছে এনালগ, যেখানে এর স্ট্যান্ডার্ড ভার্সনটিতে রয়েছে সেমি ডিজিটাল। এই এনালগ ড্যাশবোর্ডটিতে স্পিড, ফুয়েল গজ, ওডো সব কিছুই এনালগ এবং সেই সাথে ওয়ার্নিং লাইটস দেখা যায়।

Platina 110 ABS এর এই বাইকটিতে আরও কিছু আপডেট করা হয়েছে, এতে যুক্ত করা হয়েছে আধুনিক কম্ফোর্টেক প্রযুক্তি ও সেই সাথে নাইট্রোক্স SoS সাসপেনশন। অপরদিকে রাবার ফুট পেগ এর সাথে লং সিট, যাতে করে রাইডার ও পিলিয়ন খুব আরামদায়ক ভাবে রাইড করতে পারে।

অন্যান্য আপডেট এর মধ্যে রয়েছে, এর থ্রী ডি লোগো, টিউবলেস টায়ার, আরামদায়ক স্যাডেল। এছাড়া বাইকটিতে তেমন কোন পরিবর্তন আনা হয়নি।

platina 110 abs fuel tank 3d logo

Bajaj Platina 110 H-Gear ABS – ইঞ্জিন

ইঞ্জিনের ক্ষেত্রে বাইকটির তেমন কোন পরিবর্তন আনা হয়নি। বাইকটিতে এখনও রাখা হয়েছে BS6 ইঞ্জিন, ১১৫ সিসি, এয়ার কুল্ড ইঞ্জিন, যাতে থেকে 8.44 bhp এবং 9.81 Nm টর্ক উৎপন্ন করতে সক্ষম। ইঞ্জিনের সাথে যুক্ত করা হয়েছে ৫ স্টেপ এর একটি গিয়ার বক্স।

সামনের দিকে দেয়া হয়েছে টেলিস্কোপিক আপ ফ্রন্ট এবং রেয়ারে দেয়া হয়েছে টুইন শক রেয়ার এবজরভার। তবে এর স্ট্যান্ডার্ড বা সেমি ডিজিটাল ভার্সনটিতে একটি ফিচার্স রয়েছে যেটা হচ্ছে গিয়ার শিফট ইন্ডিকেটর।

Bajaj Platina 110 H-Gear বাইকটি কয়েক বছর আগে ইন্ডিয়াতে লঞ্চ করা হয়। বর্তমানে বাইকটির দুটি ভার্সন রয়েছে একটি হচ্ছে ড্রাম, অপরটি ডিস্ক ব্রেক। বর্তমানে বাইকটির দাম ইন্ডিয়ান রুপিতে ৬৪ হাজার থেকে শুরু হয়।

platina 110 abs headlight drl front suspension

তবে যত দূর মনে হচ্ছে এবিএস লঞ্চ হবার পর ড্রাম ব্রেক ডিসকন্টিনিউ করা হতে পারে। যদিও বাজাজ এবিএস ভার্সনটির দাম ঘোষণা করেনি। ধারণা করা হচ্ছে বাইকটির দাম ইন্ডিয়ান রুপিতে ৭০ হাজার এর মত হতে পারে।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে বাইকটি কি বাংলাদেশে আসবে? এটা অবশ্য সময় বলে দেবে এটি আসবে কিনা। যদি আসে তবে এন্ট্রি লেভেল বা কমিউটার এর প্রথম এবিএস যুক্ত বাইক হবে Bajaj Platina 110 H-Gear ABS।

 

ছবি ও তথ্যসূত্রঃ RushLane

About Arif Raihan opu

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*