৩৫০ সিসি – অনুমতি পাবে কি পাবে না?

অনেকদিন ধরে ৩৫০ সিসি পর্যন্ত বাইকের অনুমতি নিয়ে সবার মধ্যে একটা আগ্রহ চলছিলো। বিভিন্ন মাধ্যম থেকে শোনা যাচ্ছিল এই তো খুব দ্রুত ৩৫০ সিসির বাইক আসতে চলতে বাংলাদেশে। ইফাদ গ্রুপ যেমন রয়েল এনফিল্ড আনার প্রস্তুতি নিয়েছিলো ঠিক তেমনি কাওয়াসাকিও তাদের হাই সিসির বাইক আনার জন্য প্রস্তুত ছিলো।

ইফাদ গ্রুপের মতো অনেক বাইক কোম্পানি তাদের হাইসিসির বাইক আনার প্রস্তুতি গ্রহণ করেছিলো। কিন্তু অবশেষে কি হলো? অনুমতি কি হলো না কি হলো না আমাদের কাছে যে আপডেট আছে সেগুলো আজ আপনাদের সাথে শেয়ার করবো।

৩৫০ সিসি

স্থানীয় বাজারে মোটরসাইকেল বিপননের ক্ষেত্রে বিদ্যমান ইঞ্জিন ক্যাপাসিটির সীমা বৃদ্ধি কিংবা সীমা উন্মুক্তকরণ বিষয়ে শিল্প মন্ত্রণালয় এর অধীনে ০২.০৩.২০২১ তারিখে একটি সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিলো।  কিন্তু এই মুহূর্তে আমাদের কাছে যেই আপডেট আছে সেই অনুসারে মিটিংটি অনুষ্ঠিত হয় নি। এই মিটিং আবার কবে হবে এই নিয়ে কোন আপডেট পাওয়া যায় নি।

আরও পড়ুন >> মার্চ মাসে সকল বাইকের মূল্য

Pulsar-Rs-200

আমাদের জানামতে ৩৫০ সিসির বাইক দেশে আনার যে প্রক্রিয়া সেটা শূন্য থেকে এই পর্যন্ত আসতে প্রায় এক বছর সময় লেগেছিলো। এখন যদি সব কিছু আবার শূন্য থেকে শুরু করা হয় তাহলে আবার হয়তো বছরখানেক সময় লেগে যাবে।

৩৫০ সিসির বাইক নিয়ে তর্ক বিতর্কঃ

কেউ কেউ বলছেন হাই সিসি মানে বেশি স্পীড আর বেশি স্পীড মানে দূর্ঘটনা , কিন্তু এর পাশাপাশি আমাদের আরেকটা বিষয় খেয়াল রাখতে হবে হাই সিসির বাইকের কন্ট্রোলিং ব্রেকিং ও কিন্তু নরমাল বাইকের থেকে ভালো থাকে। তাই হাই সিসির বাইকগুলো গতির পাশাপাশি ভালো নিরাপত্তাও প্রদান করে।

কারো কারো মতে আমাদের দেশে হাই সিসি বাইক চালানোর রাস্তা নেই, কিন্তু সময়ের সাথে আমাদের দেশও আপডেট হচ্ছে। আর দেশে মাওয়ার মতো ভালোমানের এক্সপ্রেসওয়ে বানানো হচ্ছে। এই রাস্তাগুলো কিন্তু হাই সিসির বাইক চালানোর জন্য উপযুক্ত।

আমাদের প্রতিবেশী দেশগুলোতে সিসি নিমিট নাই, কিন্তু আমাদের দেশে আছে। অন্যান্য দেশের মতো আমাদের দেশও উন্নতি হচ্ছে তাই দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য এবং দেশের মোটরসাইকেল শিল্প বিস্তারের জন্য সিসি লিমিট তুলে দেয়া উচিৎ।

অনেকেই ভাবছেন সিসি লিমিট বাড়ালে হাইসিসি বাইক আসবে ইন্ডিয়ান বাইকের মূল্যের সাথে মিল রেখে, কিন্তু এমনটা মোটেও না। কারন প্রস্তাবে বলা আছে হাই সিসি বাইকের সাথে হাই ট্যাক্স ও যুক্ত আছে। যদিও বাংলাদেশে রয়েল এনফিন্ড আসে তাহলে তার দাম ৬ থেকে ৭ লাখ টাকার কম হবে না। প্রথম দিকে হয়তো বাইকগুলো ভালো বিক্রি হবে কিন্তু একটা সময় গিয়ে সেটা স্লো হয়ে যাবে।

আমরা টীম বাইকবিডি চাই দেশে হাই সিসির বাইক আসুক, কিন্তু হাই সিসির বাইক কেনার ক্ষেত্রে ড্রাইভিং লাইসেন্স এর দিকগুলো ভালোভাবে বিবেচনা করা হউক। যাতে যে ভালোভাবে বাইক চালাতে পারে না তাদের হাতে এই বাইকগুলো না যায় সেদিকে লক্ষ রাখা উচিৎ।

সব সময় নিরাপদে বাইক রাইড করুন।

ধন্যবাদ।

About Ashik Mahmud

ashik.bikebd@gmail.com'

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*