২০১৬-তে যেসব অত্যাধুনিক বাইক আনছে ভারতীয় কোম্পানি

একশোর মধ্যে প্রায় ৮০ জনেরই প্যাশন বাইক রাইড। যারা চালাতে পারেন না, তারাও উশখুশ করেন একটা রাইডের জন্য। আর সে রাইড যদি হয় ‘পথ যদি না শেষ হয় তবে তো কথাই নেই। আগামী বছর ভারতের বাজারে আসছে একগুচ্ছ নতুন বাইক। কোনওটি দামি আর কোনও কোনওটি উচ্চ দামি। তবে ধরাছোঁওয়ার মধ্যেও আছে বেশ কয়েকটি মডেল। বাজাজ পালসার সিএস ৪০০ প্রচ্ছদের বাইকটি বাজাজের প্রথম ৪০০ সিসির বাইক। আসছে আগামী বছর মার্চ মাসে। ভারতের বাজারে দাম ২ লাখ। থাকছে ফ্রন্ট অ্যান্ড রিয়ার ডিস্ক ব্রেক, ৩৭৫ সিসি সিঙ্গল সিলিন্ডার, ফোর-ভাল্‌ভ, সিক্স-স্পিড গিয়ার বক্স, ট্রিপল স্পার্ক ইঞ্জিন। হিরো এইচএক্স২৫০আর ভারতের বাজারে দাম ১.৫০ লাখ। ২৪৯…

Review Overview

User Rating: 4.63 ( 4 votes)

একশোর মধ্যে প্রায় ৮০ জনেরই প্যাশন বাইক রাইড। যারা চালাতে পারেন না, তারাও উশখুশ করেন একটা রাইডের জন্য। আর সে রাইড যদি হয় ‘পথ যদি না শেষ হয় তবে তো কথাই নেই।

২০১৬-তে যেসব অত্যাধুনিক বাইক আনছে ভারতীয় কোম্পানি

আগামী বছর ভারতের বাজারে আসছে একগুচ্ছ নতুন বাইক। কোনওটি দামি আর কোনও কোনওটি উচ্চ দামি। তবে ধরাছোঁওয়ার মধ্যেও আছে বেশ কয়েকটি মডেল।

বাজাজ পালসার সিএস ৪০০
প্রচ্ছদের বাইকটি বাজাজের প্রথম ৪০০ সিসির বাইক। আসছে আগামী বছর মার্চ মাসে। ভারতের বাজারে দাম ২ লাখ। থাকছে ফ্রন্ট অ্যান্ড রিয়ার ডিস্ক ব্রেক, ৩৭৫ সিসি সিঙ্গল সিলিন্ডার, ফোর-ভাল্‌ভ, সিক্স-স্পিড গিয়ার বক্স, ট্রিপল স্পার্ক ইঞ্জিন।

hero hx250r

হিরো এইচএক্স২৫০আর
ভারতের বাজারে দাম ১.৫০ লাখ। ২৪৯ সিসি সিঙ্গল সিলিন্ডার এই বাইকে থাকবে ৩১ পিএস পিক পাওয়ার এবং ২৬ এন এম টর্ক রেটিং, ফাইভ স্টেপ অ্যাডজাস্টেব্‌ল মোনোশক। পাওয়ার টু ওয়েট রেশিও ২২৩ পিএস/টন।

kawasaki ninja 250sl

কাওয়াসাকি নিনজা ২৫০এসএল
এখনও পর্যন্ত ভারতে এই কোম্পানির সব বাইকই মাল্টিপল সিলিন্ডার। নতুন এই মডেলটি হতে চলেছে কাওয়াসাকির প্রথম সিঙ্গল সিলিন্ডার বাইক। সিঙ্গল হেডলাইট এই বাইকটির বিশেষ বিশেষত্ব। ওজন ১৫০ কেজি এবং ভারতীয় বাজারে দাম ২.৭০ লাখ। বছরের শুরুর দিকেই বাজারে আসছে।

ducati scrambler 62

ডুকাটি স্ক্র্যাম্বলার সিক্সটি টু
স্ক্র্যাম্বলার সিরিজের এটিই হবে সর্বকনিষ্ঠ। ৪০০ সিসি, সিঙ্গল সিলিন্ডার এই বাইকটির দাম ভারতীয় বাজারে ৪.৭৫ লাখ। ৩৯৯ সিসি এল-টুইন ডেসমোড্রোমিক এয়ার-কুল্‌ড ইঞ্জিন যার পিক পাওয়ার হল ৪১.৫পিএস।

royel enfield himalayan

রয়্যাল এনফিল্ড হিমালয়ান
আগামী বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে আনুষ্ঠানিক লঞ্চ। ৪০০ সিসি বাইকটির দাম ভারতীয় বাজারে থাকবে ১.৬৫ থেকে ১.৮৫ লাখের মধ্যে। ফোর স্ট্রোক সিঙ্গল সিলিন্ডার ইঞ্জিন, ২৮ পিএস পিক পাওয়ার এবং ৩২ এনএম টর্ক।

bmw g310r

বিএমডব্লিউ জি ৩১০আর
অবশেষে কম রেঞ্জের বিএমডব্লিউ বাইক আসতে চলেছে ভারতে। মোটামুটি আগামী বছরের মাঝামাঝি হবে লঞ্চ। ৩১৩ সিসি লিকুইড-কুল্‌ড ইঞ্জিন। ফুয়েল এফিশিয়েন্সি বাড়ানোর জন্য সিলিন্ডার হেড-কে ১৮০ ডিগ্রি টুইস্ট করা হয়েছে। টিভিএস-এর সঙ্গে যৌথ উদ্যোগ তৈরি হয়েছে এই মডেল। ভারতীয় বাজারে দাম ৩ লাখ।

yamaha mt 03

ইয়ামাহা এমটি০৩
এটি আদতে ২৫০সিসি ওয়াইজেডএফ-আরথ্রি মডেলটির একটি নেকেড ভার্সন। ভারতীয় বাজারে দাম ৩.৫০ লাখ। ৪৩ পিএস পিক পাওয়ার এবং ২৯.৫ এনএম পিক টর্ক।

 

 

About শুভ্র সেন

সবাইকে শুভেচ্ছা । আমি শুভ্র,একজন বাইকপ্রেমী । ছোটবেলা থেকেই মোটরসাইকেলের প্রতি আমার তীব্র আগ্রহ রয়েছে । যখন আমি আমার বাড়ির আশেপাশে কোন মোটরসাইকেলের ইঞ্জিনের শব্দ শুনতে পেতাম, আমি তৎক্ষণাৎ মোটরসাইকেলটি দেখার জন্য ছুটে যেতাম ।২ বছর ধরে গবেষণা ও পরিকল্পনার পর আমি এই ব্লগটি তৈরী করি । আমার লক্ষ্য হল বাইক ও বাইক চালানো সম্পর্কে বাংলাদেশের মানুষের কাছে সঠিক তথ্য পৌঁছে দেয়া । সবসময় নিরাপদে বাইক চালান । আপনার বাইক চালানো শুভ হোক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*