হেলমেট ভালো রাখার উপায় – নিজে করুন

মোটরসাইকেল হেলমেট ভালো রাখার উপায় । মোটরসাইক্লিস্টদের কাছে এটি বেশ বহুল আলোচিত একটি বিষয়। অনেকেরই এই বিষয়টির উপর সচারাচর জিজ্ঞাসা থাকে। বিষয়টি সাধারন হলেও মোটরসাইক্লিস্টদের হেলমেটগুলো ভালো ও স্বাস্থ্যপ্রদ রাখার জন্যে এই বিষয়ে সবারই একটু পরিস্কার ধারনা থাকা উচিৎ। তো সেইসূত্রেই আজ আমাদের আলোচনা হেলমেটের পরিচর্যার উপর নিবদ্ধ। তো চলুন আলোচনায়।

মোটরসাইকেল হেলমেট ভালো রাখার উপায়

হেলমেট ভালো রাখার উপায়

মোটরসাইকেল হেলমেট ভালো কন্ডিশনে রাখা তেমন কঠিন কিছু নয়। আর এটা স্বাস্থ্যপ্রদ অবস্থায় রাখাও তেমন ঝামেলার কোন কাজ নয়। কেবলমাত্র সাধারন কিছু অভ্যাস আয়ত্ব করলেই এটি সহজে করা সম্ভব। ফলে বাড়তি কোন কাজের চাপ না নিয়েই ব্যবহৃত হেলমেটটি ভালো ও স্বাস্থ্যসম্মতভাবে রাখা সম্ভব।

তো আপনি যদি সচরাচরই মোটরসাইকেল চালনা তথা হেলমেট ব্যবহারে অভ্যস্ত হন তাহলে অবশ্যই হেলমেটের যত্ন নিতে হবে। আর অবশ্যই হেলমেট ভালো রাখার উপায় গুলিতে অভ্যস্ত হতে হবে। সামান্য কয়েক মিনিটের এই অভ্যাসগুলেই আপনার হেলমেট ও আপনার নিজের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় কাজে দেবে।

হেলমেটের ধুলোময়লা ঝেড়ে ফেলুন

যেকোন রাইড থেকে ফিরে এসেই প্রথমে হেলমেটের বাইরের শেল হতে ধুলোময়লা ঝেড়ে ফেলার অভ্যাস করুন। এটা প্রতিবার রাইড শেষে বা প্রাত্যহিকভাবে করতে পারেন। এটি মাত্র কয়েক সেকেন্ডের একটি অভ্যাস কিন্তু খুবই কাজে দেয়। আর এর ফলে হেলমেটে কঠিন ময়লাও সহজে জমে যেতে পারে না।

ভেজা হেলমেট শুকিয়ে নিন

বৃষ্টিতে বা ঘন কুয়াশায় রাইড শেষে ঘরে বা কর্মক্ষেত্রে পৌছুতে পৌছুতে অবশ্যই আপনার হেলমেটটি ভিজে যেতে পারে। সেক্ষেত্রে হেলমেটটি শুকিয়ে নিন। এর বাইরের শেলটি নরম কাপড় বা টিস্যুপেপার দিয়ে মুছে নিন। আর ভেতরের লাইনার বা প্যাডিং ভিজে গেলেও টিস্যু দিয়ে পানি শুষে নিন। আর সবচেয়ে ভালো হয় কিছুটা উষ্ণ বা বাতাস চলাচলের স্থানে রেখে দিলে।

মোটরসাইকেল হেলমেট ভালো রাখার উপায়

পুরো হেলমেট পরিস্কার করুন

অনেকদিন ধরে প্রতিনিয়ত হেলমেট ব্যবহারের ফলে সাধারনভাবেই তার ভেতরেও ময়লা হয়ে যায়। ফলে ভেতরের প্যাডিং বা লাইনারে ময়লা ও দুর্গন্ধ হতে পারে। আর সেইসাথে এয়ারভেন্ট ও খাাঁজগুলোতেও ময়লা জমে যেতে পারে। এক্ষেত্রে হেলমেটের ভেতরটাও ভালো করে পরিস্কার করতে হবে।

আপনার রাইডিংয়ের অবস্থা অনুযায়ী কিছুদিন পরপরই হেলমেটের ভেতর পরিস্কারে নজর দিন। এক্ষেত্রে আমাদের হেলমেটের যত্নআত্তি আলোচনাটি পড়ে নিতে পারেন। আর পরিস্কারের সময় অবশ্যই হেলমেটের প্যাডিং, ভিজর, বাইরের শেল, প্রভৃতি খুব যত্নের সাথে পরিস্কার করে নিতে হবে। পরে অবশ্যই সেসব আবার যথাযথভাবে সেট করে নিতে হবে।

মোটরসাইকেল হেলমেট ভালো রাখার উপায়

সঠিকভাবে হেলমেট সংরক্ষন করুন

সঠিকভাবে হেলমেট সংরক্ষন করাও একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। কেননা আমরা কেবল বাইক চালানোর সময়েই হেলমেট ব্যবহার করে থাকি। আর বাকি সময়টা হেলমেট অব্যবহৃত পড়েই থাকে। আর এই পড়ে থাকার জায়গাটি অবশ্যই ভালো হতে হবে। জায়গাটি অবশ্যই পরিস্কার ও শুকনো হতে হবে।

হেলমেট কখনোই সরাসরি সূর্যের আলোতে, ভেজা বা স্যাঁতস্যাঁতে স্থানে রাখা উচিৎ নয়। আর বাক্স বা বন্ধ ক্লজিটেও হেলমেট সংরক্ষন করা উচিং নয়। কেননা এতে করে তাতে ফাঙ্গাস পড়ে যেতে পারে। বরং যথেষ্ট বাতাস চলাচল করে এমন উষ্ণ স্থানেই হেলমেট সংরক্ষন করা স্বাস্থ্যপ্রদ।

মোটরসাইকেল হেলমেট ভালো রাখার উপায় – নিজে করুন

তো বন্ধুরা, আশা করি বুঝতেই পারছেন আপনার ব্যবহারের হেলমেটটি ভালো রাখা তেমন কঠিন কোন কাজ নয় । বরং কয়েক মিনিটের যত্ন ও কয়েক সেকেন্ডের অভ্যাস আপনার হেলমেটটিকে পরিচ্ছন্ন ও স্বাস্থ্যকর রাখতে পারে। আর কে না জানে যে একটি পরিচ্ছন্ন হেলমেট একটি চমৎকার ও আনন্দদায়ক রাইড নিশ্চিত করে। তো আজ এটুকুই, ধন্যবাদ সবাইকে।

About Saleh Md. Hassan

it's Saleh, a homebound stranger; sometimes unleashes the inner ascetic to trail like an outlaw.

2 comments

  1. huraira.shakib@gmail.com'
    আবু হুরাইরা সাকিব

    আমি মাসে ২ বার আমার হেলমেট এর প্যাডিং গুলা শ্যাম্পু দিয়ে সুন্দর করে ওয়াস করি।আর হেলমেট এর বাহিরের পাশ টা ক্লিনার দিয়ে পরিষ্কার করি ৬-৭ দিন পর পর।আমার হেলমেট এর বয়স ৬ মাস,কিন্তু দেখলে মনে হই গত কাল কিনেছি

    বিদ্র: আমি STUDDS THUNDER D3 এর সাদা কালার টা ব্যাবহার করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*