রিভল্ট আরভি৪০০ ইলেকট্রিক বাইক ফিচার ডিটেইল

রিভল্ট আরভি৪০০ সদ্য বাজারে আসা নতুন একটি ইলেকট্রিক বাইক। এটি ভারতের নিজস্ব তৈরীকৃত প্রথম ই-বাইক। এটি বেশ বৈচিত্রপূর্ণ কিছু ফিচার নিয়ে বাজারে এসেছে। আজ আমরা বাইকটির ফিচার আলোকপাত করে রিভল্ট আরভি৪০০ ইলেকট্রিক বাইক ফিচার ডিটেইল নিয়ে হাজির হয়েছি।

রিভল্ট আরভি৪০০ ইলেকট্রিক বাইক ফিচার ডিটেইল

আধুনিক এই যুগে ই-বাইক রাজপথে বেশ নতুন এক সংযোজন। হাইব্রিড ও ইলেকট্রিক কার তো বেশ আগেই বাজারে চলে এসেছে। আর ফুয়েল-সেভিং প্রবনতায় সাড়া দিয়ে ই-বাইকও ইতিমধ্যে বাজার দখল করেছে। আর এসব ই-বাইক সাধারন পেট্রলচালিত বাইকের সাথে পাল্লা দিয়ে বেশ ভালোই চলছে।

ভারত ইতিমধ্যে তাদের নিজস্ব ইলেকট্রিক বাইকের ডিজাইন করেছে। সেইসূত্রে এটাই তাদের নিজস্ব ডিজাইনে প্রথম ইলেকট্রিক বাইক। ফলত: রিভল্ট আরভি৪০০ ও আরভি৩০০ এই আগষ্ট ২০১৯ এ বাজারে চলে আসে। আর এসব মডেল দিয়েই তারা মুলত: হাইব্রিড দু-হুইলার ইন্ডাষ্টিতে প্রবেশ করলো।

রিভল্ট আরভি৪০০ ইলেকট্রিক বাইক ফিচার ডিটেইল

রিভল্ট আরভি৪০০ ইলেকট্রিক বাইক ডিজাইন ও স্টাইল

নতুন এই ই-বাইকটি একটি সলিড নেকেড-স্পোর্ট ডিজাইনের বাইক। এটা মোটামুটি প্রিমিয়াম স্ট্রিট-নেকেড মোটরসাইকেলের আদলে ডিজাইন করা। কেবল এর মাঝের অংশ ও নিচের দিকটা কিছুটা আলাদা প্লাস্টিক প্যানেলে ঢাকা। এই অংশটিতেই বাইকটির ব্যাটারী, মোটর, আর অন্যান্য ইলেকট্রিক যন্ত্রপাতি বসানো রয়েছে। আর এর বাকি সবকিছুই রেগুলার বাইকের মতো ডিজাইন করা।

এই বাইকটির হেডল্যাম্প, টেইলল্যাম্প, ওডোপ্যানেল, ট্যাংক, সিট সবই আর সাধারন বাইকের মতোই। আর এর হুইল, সাসপেনশন, মাফলার কোন কিছুই পেট্রল চালিত বাইকের চেয়ে আলাদা কিছু নয়।

এর হেডল্যাম্পটি  একটি চমৎকার ডিজাইনের একটি ইউনিট। যাতে এলইডি ডিআরএল সহ ডেডিকেটেড প্রজেক্টর লাইট ব্যবহার করা হয়েছে। এছাড়া এর টেইললাইট আর ইন্ডিকেটরগুলোও সবই এলইডি টাইপের। সেইসাথে এর ওডোমিটারটিও সম্পূর্ণ ডিজিটাল আর সুন্দর ডিজাইনের, যা উজ্জল দিনের আলোতেও পরিস্কার ডিসপ্লে দেয়।

রিভল্ট আরভি৪০০ এ রেগুলার পেট্রল-ট্যাঙ্ক সদৃশ একটি ট্যাঙ্ক রয়েছে। কিন্তু এর ভেতরে রয়েছে একটি গ্যাজেট হোল্ডার, আর তার একটি নিচে পাওয়ারফুল লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারী। এটি ডিটাচেবল। তাই এটি আলাদাভাবে চার্জ করা যায়। এছাড়াও বাইকটিতে বিল্ট-ইন চার্জিং মাউন্ট রয়েছে।

আর বাইকটির সিটটি একটি বেশ স্পোর্টি সিট, যাতে একটি চওড়া গ্র্যাবরেইল রয়েছে। এটি একটি সিঙ্গেল-পিস সিট। তবে তা রাইডার ও পিলিয়নের জন্যে আলাদা উচ্চতায় ডিজাইন করা। আর বাইকটির পিছন দিকটা এ্যাঙ্কর-হেড এলইডি টেইলল্যাম্প আর লম্বা মাডগার্ডসহ বেশ স্পোর্টি ডিজাইনের।

ফ্রেম, হুইল, ব্রেক, সাসপেনশন সিস্টেম

রিভল্ট আরভি৪০০ এলুমিনিয়াম সুইংআর্মসহ একটি লাইটওয়েট সিঙ্গেল-ক্রেডল ফ্রেমে ডিজাইন করা। আর এর হুইলগুলো চমৎকার ডিজাইনের স্ট্যান্ডার্ড ১৭” সাইজের এ্যালয়-রিম আর স্ট্রিট টায়ারযুক্ত। এই টায়ারগুলো যথেষ্ট চওড়া ও টিউবলেস টাইপের।

বাইকটির ব্রেকিং সিস্টেম দুই চাকাতেই হাইড্রলিক ডিস্ক টাইপের। দুটো ব্রেকেই রয়েছে ২৪০মিমি সাইজের ভেন্টিলেটেড ডিস্ক ব্রেক। আর সেইসাথে রয়েছে সিবিএস কম্বিনেশন ব্রেকিং সিষ্টেম। যা সমন্বিত ব্রেকিং নিশ্চিত করে।

আর সাসপেনশনের ক্ষেত্রে এর সামনে রয়েছে আপসাইড-ডাউন ইউএসডি সাসপেনশন সিষ্টেম। এর পেছনে রয়েছে এডজাষ্টেবল মনো সাসপেনশন। তো সবমিলিয়ে এর হুইল, ব্রেক, ও সাসপেনশন সিষ্টেম নিয়ে এটি রেগুলার স্ট্রিট-বাইকের মতোই ডিজাইন করা।

রিভল্ট আরভি৪০০ ইলেকট্রিক বাইক ফিচার ডিটেইল

রাইডিং ফিচার ও ইরগনোমিক্স

রিভেল্ট আরভি৪০০ একটি স্পোর্টি ডিজাইনের ইলেকট্রিক বাইক। তবে এর ডিজাইন আর সাধারন ইলেকট্রিক কমিউটার হতে আনেকটাই বেশি কিছু। এতে রয়েছে একটি শক্তিশালী ইলেকট্রিক মোটর। আর এর চালনা, গিয়ার বা ক্লাচ জাতীয় বিভিন্ন কন্ট্রোলিং সিকোয়েন্স হতে মুক্ত।

এর হ্যান্ডেলবারে থ্রটলবার পাবেন, যা মোটরটিকে থ্রটল-আপ করে। তবে এতে কোন গিয়ার লিভার, ক্লাচ লিভার, অথবা রাইট-সাইড ফুটব্রেক লিভার নেই। বরং এর হ্যান্ডেলে অন্যান্য বাইকের মতোই দুটি সাধারন লিভার রয়েছে।

বাইকটির হ্যান্ডেলের বামপাশের লিভারটি মুলত: এর পেছনের ব্রেক কন্ট্রোল করে। এরসাথেই সিবিএস ফিচারের মাধ্যমে সামনের ব্রেকের লিঙ্ক রয়েছে। তবে এর ডানপাশের লিভারটি কেবলমাত্র সামনের ব্রেকটিই অপারেট করে। তো সবমিলেয়ে রিভল্ট আরভি৪০০ এর চালনা খুবই সহজ আর একদমই ঝামেলাহীন।

রিভল্ট আরভি৪০০ মোটর পারফর্মেন্স ও ফিচার

আরভি৪০০ মডেলটিতে একটি 72V, 3.24KWh রেটিংয়ের শক্তিশালি ইলেকট্রিক মোটর ব্যবহার করা হয়েছে। এটি একটি হেভি-ডিউটি ড্রাইভ-বেল্ট ও বড় একটি স্প্রোকেটের সাহায্যে পেছনের চাকাটিকে চালিত করে। আর মোটরটিকে একটি শক্তিশালি লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারী শক্তি প্রদান করে। যা কিনা লাইফটাইম (১,৫০,০০০ কিলোমিটার) ওয়ারেন্টিযুক্ত।

এই ব্যাটারিটি মোটামুটি খুব দ্রুতই চার্জ হয়। এটি ৩ ঘন্টায় প্রায় ০-৭৫%, আর ৪.৫ ঘন্টায় প্রায় ০-১০০% চার্জ করতে পারে। ব্যাটারীটি আলাদাভাবে বাইক থেকে খুলে নিয়ে চার্জ করা যায়। তবে বাইকের প্যানেলেও এর বিল্ট-ইন চার্জিং মাউন্ট রয়েছে।

সম্পূর্ণ চার্জযুক্ত একটি আরভি৪০০ ইকনোমিক মোডে ৪৫কিমি/ঘন্টা স্পিডে প্রায় ১৫০কিমি চলতে পারে। আর নরমাল ৬৫কিমি/ঘন্টা স্পিডে প্রায় ১০০কিমি ও স্পোর্টস মোডে ৮০কিমি/ঘন্টা স্পিডে সর্বোচ্চ প্রায় ৮০কিমি পর্যন্ত চলতে পারে।

১০৮কেজি ওজনের এই বাইকটি সহজেই দুজন মানুষকে বহন করতে পারে। এর ম্যাক্সিমাম লোড-ক্যাপাসিটি প্রায় ১৫০কেজি। তো ১৭০এনএম টর্ক রেটিংয়ের এই ইলেকট্রিক মোটরটি নি:সন্দেহে প্রাত্যহিক চলাচল ও উইকএন্ড রাইডের জন্যে বাইকটিকে যথেষ্ট সক্ষমতা প্রদান করে।

অন্যান্য ফিচার

রিভল্ট আরভি৪০০ বেশ কিছু সাতন্ত্র ফিচারযুক্ত। যা ইলেকট্রিক বাইকে সচরাচর দেখা যায় না। আর একারনেই এটি অন্যান্য ইলেকট্রিক বাইক হতে বেশ খানিকটা এগিয়ে।

  • এটি ইলেকট্রিক্যালি অপারেটেড বিধায় এটি ইলেকট্রিক পুশ-পাওয়ার বাটন দিয়ে স্টার্ট হয়।
  • এটিতে একটি কি-লেস রিমোট রয়েছে। রিমোটটি বাইকটিকে ৫০ মিটার দুরত্বের মধ্যে লক, আনলক, স্টার্ট, ও লোকেট করতে পারে।
  • আরভি৪০০ একটি ডেডিকেটেড মোবাইল এ্যাপের সাথে সংযুক্ত করা যায়। এই MyRevoltApp বাইকটিকে কন্টোল, ও অপারেট করার সাথে সাথে বিভিন্ন প্যারামিটারও ডিসপ্লে করতে পারে।
  • ইলেকট্রিক বাইক হওয়ায় আরভি৪০০ বেশ নি:শব্দেই চলে। তবে এতে বাড়তি চারটি আটিফিশিয়াল পেট্রল-ইঞ্জিন রেভিং সাউন্ড দেয়া আছে। যা অন করলে এর থ্রটলের সাথে সিনক্রোনাইজ হয়ে কাজ করে ও পেট্রল-ইঞ্জিন রেভিংয়ের আমেজ দেয়।
  • এই বাইকটি ইলেকট্রিক বাইক হলেও এতে রেগুলার স্ট্রিট-বাইকের মতো ফুল-ফিচারড ওডো, লাইট, সিগন্যাল প্রভৃতি রয়েছে।
  • এটিতে ইউএসবি গ্যাজেট চার্জিং পোর্ট রয়েছে। আর এর ডিসপ্লেতে ব্যাটারী স্ট্যাটাস দেখায়।
  • বাইকটির শক্তিশালি মোটর বেল্ট-ড্রাইভ আর বড় আকারের একটি স্প্রোকেটের সাহায্যে এর পেছনের চাকা চালিত করে। ফলে এর রাইডিং রেঞ্জে বেশ ভালো টর্কের অনুভুতি প্রদান করে।
  • এর ফুটপেগগুলো রাইডারের বসার স্টাইলের সাথে মিল রেখে এডজাষ্টেবল। এর পেছনের সাসপেনশনটি ও এ্যাডজাষ্টেবল।
  • বাইকটির সাইড-স্ট্যান্ডের সাথে একটি সেফটি ফিচার যুক্ত করা হয়েছে। ফলে এটি নামানো অবস্থায় মোটরটি স্টার্ট হয়না। আবার স্ট্যান্ড তুলে নিলে মোটর স্টার্ট করা যায়।
  • এতে সিবিএস কম্বিনেশন ব্রেকিং সিষ্টেম রয়েছে। ফলে এটি সমন্বিত ব্রেকিং নিশ্চিত করে।

রিভল্ট আরভি৪০০ ইলেকট্রিক বাইক ফিচার ডিটেইল

Revolt RV400 – Specification & Dimensions

SpecificationRevolt RV400
MotorElectric Motor, 3KW (Mid Drive)
Battery TypeLithium-Ion
Voltage/Wattage72V, 3.24KWh
Charging Time0-75% in 3 Hours And 0-100% in 4.5 Hours
Maximum Top Speed85Kmph
Dimension
Frame TypeLightweight Single Cradle Frame
Dimension (LxWxH)Not Found
Wheel Base1,350mm
Ground Clearance215mm
Saddle Height814mm
Weight108 Kg
Maximum Loading2 Persons/Maximum 150Kg
Mileage Range150kms(Eco Mode), 100kms(Normal Mode), 80kms(Sports Mode)
Wheel, Brake & Suspension
The suspension (Front/Rear)USD Telescopic Fork

Adjustable Mono Shock Absorber

Brake system (Front/Rear)Front: 240mm Hydraulic Disk

Rear: 240mm Hydraulic Disk

CBS (Combined Braking System)

Tire size (Front / Rear)Front: 90/80-17

Rear: 120/80-17

Both Tubeless

Electronics
Light & SignalsLED Headlamp (Projection for High beam), Tail Lamps and Indicators (All LED)
SpeedometerFully Digital

*All the specifications are subject to change upon company rules, policy, offer & promotion. BikeBD is not liable for the changes.

About Saleh Md. Hassan

আমি কোন বাতিকগ্রস্ত পথের খেয়ালী ধরনের নই…. তবে মোটরসাইকেল পছন্দ করি ও প্রয়োজনে ব্যবহার করি মাত্র…. কিছুটা ঘরকুনো বাধ্যগত চালক…. তবে মাঝে মাঝে নিজের ভেতরের যোগী-ভবঘুরে স্বত্তাকে মুক্তি দেই আমার দুইচাকার ঘোড়ার উপর চেপে বসে বিস্তৃত অদেখার পথে ছুটে যাবার জন্য…..অনেকটা বাঁধনহীন চির ভবঘুরের মতো…..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*