মোটরসাইকেল ও মোটরবাইক এর মধ্যে পার্থক্য!

মোটরসাইকেল ও মোটরবাইক এই দুটোর মধ্যে কিছু পার্থক্য। সাধারণত দুচাকার সব মোটরযুক্ত সব কিছুকেই মোটরসাইকেল বলে ডাকা হয়। তবে কিছু মোটরসাইকেল রাইড সহ অনেকেই আছেন যারা মোটরসাইকেল কে মোটরবাইক অথবা ছোট করে বাইক বলে থাকেন।

আবার অনেকেই আছেন যারা সেভাবে পার্থক্য করেন না তারা দুই চাকার সব কিছুকেই মোটরবাইক বা মোটরসাইকেল বলে থাকেন। তো এখন প্রশ্ন আসতে পারে যে মোটরসাইকেল ও মোটরবাইকের মধ্যে পার্থক্য কি আর আদৌ কি কোন পার্থক্য রয়েছে? চলুন জেনে নেই যে মোটরসাইকেল ও মোটরবাইক এই দুইয়ের মধ্যে পার্থক্য কি রয়েছে।

difference-between-motorcycle-and-motorbike মোটরসাইকেল ও মোটরবাইক

মোটরসাইকেল ও মোটরবাইকের আসলে কি?

সহজ ভাষায় যদি বলি তবে মোটরসাইকেল বা মোটরবাইক হচ্ছে দুই চাকা বিশিষ্ট একটি বাহন, যা ইলেক্ট্রিক অথবা তেলের মাধ্যমে চালনা করা হয়।

আবার অপর দিকে বলা যায় যে, মোটর চালিত অথবা ইলেক্ট্রিক যাই বলি না কেন, মোটরসাইকেল বা মোটরবাইক যেটাই হোক, বাই সাইকেল এর ক্ষেত্রে মানুষ সাইকেল বা বাইক বলে থাকে।

তাই আপনি বুঝতেই পারছেন যে সাইকেল এর সাথে মোটর যুক্ত করার পর সেটা মোটরসাইকেল বা মোটরবাইক হয়ে গিয়েছে। যদিও আমরা কিছু ক্ষেত্রে এড়িয়ে গিয়েছি যেমন অনেক আপডেট ফিচার্স, এর মধ্যে রয়েছে সাসপেনশন, চাকা, ব্রেক, কন্ট্রোল কনসোল, ইত্যাদি যা মোটরসাইকেল বা মোটরবাইক কে কিছুটা এগিয়ে রেখেছে। তাই বলা যায়, মোটরসাইকেল বা মোটরবাইক দুটোই মুল বিষয় দুটোর ক্ষেত্রেই এক।

মোটরসাইকেল ও মোটরবাইক এর মধ্যে পার্থক্য

এখন মুল দিক থেকে মোটরসাইকেল ও মোটরবাইকের মধ্যে অনেক সাদৃশ্য রয়েছে, যার কারণে মানুষ মোটরসাইকেল কে মোটরসাইকেল বা মোটরবাইক বলে থাকে। তাহলে প্রশ্ন হচ্ছে যে এই দুটির মধ্যে পার্থক্য কোথায় রয়েছে?

উত্তরটা খুব সহজ! এটা আসলে মানুষের পছন্দের বিষয়। যে যেভাবে ডেকে সাচ্ছন্দ বোধ করনে সে সেভাবেই দুই চাকাকে মোটরসাইকেল বা মোটরবাইক বলে ডেকে থাকেন।

মুল বিষয়ের ক্ষেত্রে সেভাবে কোন পরিবর্তন নেই, যেভাবে আপনি চার চাকার গাড়িকে গাড়ি বা সেডান ডেকে থাকেন, এখানে সেডান বা গাড়ি একই অর্থ বহন করে থাকে।

যদিও দুটিই একটি রকম বাহন বা বলা যায় একই ধরনের, তবে এখানে দুটির মাঝে পার্থক্যের একটা মিথ প্রচলিত রয়েছে। উন্নত দেশ গুলোতে বড়সড় যেসব মোটরসাইকেল রয়েছে, সেখানের লোকেরা সেগুলোকে মোটরবাইক বলতে সাচ্ছন্দ বোধ করে থাকেন।

আসলে এই সকল বাইক গুলোতে উন্নত প্রযুক্তি ও ফিচার্স দেয়ার কারনে এর অভিজাত্যের একটা দিক উন্মুচিত হয়। যা বাইকটির একটি আলাদা পরিচয় তুলে ধরে।

অপর দিকে মোটরসাইকেল হচ্ছে মোটর দেয়া একটি বাহন, এটি ছোট হতে পারে আবার বড় সাইজেরও হতে, এতে কোন ধরনের তেমন পার্থক্য নেই।

আর এখানে একটি মজার বিষয় হচ্ছে বড়সড় সাইজের মোটরসাইকেল গুলোতে সেভাবে বর্ণনা করা প্রয়োজন পরে না। এটি নিজেই নিজের পরিচয় বহন করে থাকে।

আবার অন্য দিকে একটি বিষয় খুবই মজার, সেটি হচ্ছে বিশ্বের অনেক উন্নত দেশ গুলোতে মোটরসাইকেল বলা হয় এবং ছোট সাইজের গুলোকে বলা হয় মোটরবাইক, যা অনেকটা ভাইস ভার্সা। তাই আপনি আপনার বাহনটিকে যে নামেই ডাকুন না কেন, মোটরসাইকেল হোক বা মোটরবাইক, দুটি বাহনই একই রকম।

মোটরসাইকেল ও মোটরবাইক – স্থানীয় প্রভাব

মোটরসাইকেল ও মোটরবাইক এই দুটো শব্দের মাঝে স্থানীয় প্রভাবও কিছুটা রয়েছে। মোটরসাইকেল শব্দটি বেশিভাগ ক্ষেত্রে ফরমাল শব্দ হিসেবে ব্যবহার করা হয়, অপর দিকে সাধারণ ভাবে মোটরবাইক শব্দটি ব্যবহার করা হয়।

যখন কেউ টু-হুইলার এর কথা চিন্তা করে থাকেন বা বলে থাকেন, সাধারণত সবাই মোটরসাইকেল কেই বুঝিয়ে থাকেন। তবে কেউ কেউ টু-হুইলারের ক্ষেত্রে বাইক বা মোটরবাইক ব্যবহার করে থাকেন।

অপরদিকে ইউরোপিয় এরিয়াতে মোটরবাইক শব্দটি বেশি ব্যবহৃত হয়ে থাকে এবং অস্ট্রেলিয়াতে সাধারণত মোটরবাইক শব্দটি ব্যবহার করা হয়।

এছাড়া অন্যান্য ইংলিশ স্পিকিং দেশ গুলোতে উত্তর ও দক্ষিণ আমেরিকাতে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত শব্দ হচ্ছে মোটরসাইকেল। সবশেষে এটাই বলতে চাই যে মোটরবাইক হোক বা মোটরসাইকেল যে যাই ডাকুক না কেন-দুটিই একই বাহন কে নির্দেশ করে থাকে। ধন্যবাদ।

We will be happy to hear your thoughts

Leave a reply

BikeBD
Logo