মোটরসাইকেলের মালিকানা পরিবর্তনের নিয়মাবলি

মোটরসাইকেলের মালিকানা পরিবর্তন নিয়ে আমরা অনেকে বিভিন্ন সমস্যায় পড়ি । বাংলাদেশ জনবহুল দেশ যার কারনে আমাদের দেশের রাস্তায় সব থেকে বড় সমস্যা হল জ্যাম । আমরা রাস্তায় বের হলে জ্যাম নিয়ে অনেক চিন্তা-ভাবনা করি যে কোন রাস্তায় জ্যাম হবে আর কোন রাস্তায় জ্যাম হবে না । আর জ্যাম থেকে সহজে বের হয়ে যাওয়ার জন্য আজকালকার মানুষেরা বাইকের প্রতি আকৃষ্ট হচ্ছে । যার কারনে আমাদের দেশের মার্কেটে বাইকের চাহিদাও বেড়ে চলছে এবং দিনে দিনে বিভিন্ন রকম মোটরসাইকেলের আসছে আমাদের দেশে । এক এক ধরনের মোটরসাইকেলের ফিচার, পার্ফমেন্স, মাইলেজ, পাওয়ার এক এক রকম । কিন্তু অনেক মানুষেরা নতুন বাইক কেনার সামর্থ্য থাকে…

Review Overview

User Rating: 4.08 ( 15 votes)

মোটরসাইকেলের মালিকানা পরিবর্তন নিয়ে আমরা অনেকে বিভিন্ন সমস্যায় পড়ি । বাংলাদেশ জনবহুল দেশ যার কারনে আমাদের দেশের রাস্তায় সব থেকে বড় সমস্যা হল জ্যাম । আমরা রাস্তায় বের হলে জ্যাম নিয়ে অনেক চিন্তা-ভাবনা করি যে কোন রাস্তায় জ্যাম হবে আর কোন রাস্তায় জ্যাম হবে না । আর জ্যাম থেকে সহজে বের হয়ে যাওয়ার জন্য আজকালকার মানুষেরা বাইকের প্রতি আকৃষ্ট হচ্ছে । যার কারনে আমাদের দেশের মার্কেটে বাইকের চাহিদাও বেড়ে চলছে এবং দিনে দিনে বিভিন্ন রকম মোটরসাইকেলের আসছে আমাদের দেশে । এক এক ধরনের মোটরসাইকেলের ফিচার, পার্ফমেন্স, মাইলেজ, পাওয়ার এক এক রকম । কিন্তু অনেক মানুষেরা নতুন বাইক কেনার সামর্থ্য থাকে না যার ফলে তারা পুরাতন মোটরসাইকেলের বা সেকেন্ড হ্যান্ড মোটরসাইকেলের কিনতে চায় । কিন্তু সবাই এটা জানে না যে মোটরসাইকেলের মালিকানা পরিবর্তন করতে কি কি নিয়মাবলি বা কি করতে হয় । চলুন দেখে আসি নিয়মাবলিগুলো ।

motorcyle ownership transfer in bangladesh brta

মোটরসাইকেলের মালিকানা পরিবর্তনের নিয়মাবলি

মালিকানা পরিবর্তনের জন্য কোন সিসি বাইকে কত টাকা লাগে

আমরা যখন পুরাতন বা সেকেন্ড হ্যান্ড মোটরসাইকেল কিনি তখন আমাদের সেই মোটরসাইকেলের কাগজ বা নম্বর প্লেট নিজের নামে করতে হয় মোটরসাইকেলের মালিকানা পরিবর্তন এর জন্য । আমরা অনেকে জানি না বাইক পরিবর্তনের জন্য ব্যাংকে নাম্বার প্লেট ছাড়া ও সহ কত সিসি বাইকের জন্য কত টাকা লাগে এবং সমস্যায় পরি । চলুন দেখে আসি কত টাকা লাগতে পারে ।

>>Click here to see BikeBD all reviews of 2017<<

মোটরসাইকেল ০০-১০০ সিসির জন্য ব্যাংকে টাকা জমা লাগে (নাম্বার প্লেট সহ)

মালিকানা ফি –                    ২,১২৮/- টাকা

ডিজিটাল নাম্বার প্লেট –       ২,২৬০/- টাকা

ডিজিটাল ব্লু বুক –                    ৫৫৫/- টাকা

প্রতিলিপি ফি –                            ৩৪৫/- টাকা

মোটরসাইকেল ১০০-১৫০ সিসির জন্য ব্যাংকে টাকা জমা লাগে (নাম্বার প্লেট সহ)

মালিকানা ফি –                    ২,৬৬৫/- টাকা

ডিজিটাল নাম্বার প্লেট –       ২,২৬০/- টাকা

ডিজিটাল ব্লু বুক –                    ৫৫৫/- টাকা

প্রতিলিপি ফি –                            ৩৪৫/- টাকা

মোটরসাইকেল ০০-১০০ সিসির জন্য ব্যাংকে টাকা জমা লাগে (নাম্বার প্লেট ছাড়া)

মালিকানা ফি –                     ২,১২৮/- টাকা

ডিজিটাল ব্লু বুক –                ৫৫৫/- টাকা

প্রতিলিপি ফি –                        ৩৪৫/- টাকা

মোটরসাইকেল ১০০-১৫০ সিসির জন্য ব্যাংকে টাকা জমা লাগে (নাম্বার প্লেট ছাড়া)

মালিকানা ফি –                      ২,৬৬৫/- টাকা

ডিজিটাল ব্লু বুক –                    ৫৫৫/- টাকা

প্রতিলিপি ফি –                            ৩৪৫/- টাকা

মোটরসাইকেলের মালিকানা

>> Click To See The First Impression Of Lifan KPT 150 <<

মোটরসাইকেল মালিকানা বদলির ফর্ম

রেজিষ্ট্রেশন নাম্বারঃ

মালিকের নামঃ

পিতার নামঃ

ঠিকানাঃ

ক্রমিক নংমালিকানা বদলীর প্রয়োজনীয় কাগজ পত্রাদি
০১টি ও ফরম
০২টি টি ও ফরম
০৩এইচ ফরম
০৪বিক্রয় রশিদ
০৫১০ টাকার রেভিনিউ স্ট্যাম্প
০৬ক্রেতা+বিক্রেতার ছবি (৩+২ স্বাক্ষরযুক্ত)
০৭ক্রেতার ন্যাশনাল আইডির ফটোকপি
০৮বিক্রেতার ন্যাশনাল আইডির ফটোকপি
০৯ক্রেতার TIN নম্বরের ফটোকপি
১০বিক্রেতার TIN নম্বরের ফটোকপি
১১TAX টোকেন এর আপডেট ফটোকপি
১২ফিটনেস এর আপডেট ফটোকপি
১৩২০০টাকার ক্রেতার স্ট্যাম্প
১৪২০০টাকার বিক্রেতার স্ট্যাম্প
১৫মালিকানা বদলীর ফি বাবদ (ব্যাংক জমা রশিদ)
১৬গাড়ী পরিদর্শন
১৭বিক্রেতা হাজির
১৮ক্রেতা হাজির

 

মালিকানা বদলীর ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র (ওয়ারিশসূত্রে প্রাপ্ত মালিকানা ব্যতিত):

 ক্রেতার করণীয়ঃ

১। পূরণকৃত ও স্বাক্ষরিত ‘টিও’ ও ‘টিটিও’ ফরম; [এ দু’টি ফরমসহ অন্যান্য ফরম এ ওয়েবসাইটের https://goo.gl/vytt18 DOWNLOAD FORMS থেকে পাওয়া যাবে]

২। প্রয়োজনীয় ফি জমা দানের রশিদ ।

৩। ক্রেতার TIN সার্টিফিকেটের সত্যায়িত কপি (ভাড়ায় চলে না এমন কার, জিপ, মাইক্রোবাস-এর ক্ষেত্রে) ।

৪। মূল রেজিস্ট্রেশন সনদ (উভয় কপি)/ডিজিটাল রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেট(প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) ।

৫। ছবিসহ নন-জুডিসিয়াল স্ট্যাম্পে ওয়ারিশগণের হলফনামা (একাধিক ওয়ারিশ থাকলে এবং একজনের নামে মালিকানা প্রদান করা হলে অন্যান্য ওয়ারিশগণ কর্তৃক স্ট্যাম্পে আর একটি হলফনামা দিতে হবে)।

৬। সংশ্লিষ্ট নমুনা স্বাক্ষর ফরমে ক্রেতার নমুনা স্বাক্ষর এবং ইংরেজীতে নাম, পিতার/স্বামীর নাম, পূর্ন ঠিকানা ও ৩ কপি স্ট্যাম্প আকারের রঙ্গীন ফটোসহ ফরমের অন্যান্য সকল তথ্য প্রদান, তবে ক্রেতা কোন প্রতিষ্ঠান হলে, উপরে বর্ণিত কাগজপত্রসহ (হলফনামা ব্যতিত) অফিসিয়াল প্যাডে চিঠি।

 বিক্রেতার করণীয়ঃ

১। ফরম ‘টিটিও’ এবং বিক্রয় রশিদে স্বাক্ষর ।

২। বিক্রেতার ছবিসহ বিক্রয় হলফনামা ।

৩। বিক্রেতা কোম্পানী হলে কোম্পানীর লেটার হেড প্যাডে ইন্টিমেশন, বোর্ড রেজিুলেশন ও অথরাইজেশন পত্র প্রদান ।

৪। মোটরযানটি ব্যাংক অথবা অন্য কোন প্রতিষ্ঠানের নিকট দায়বদ্ধ থাকলে দায়বদ্ধকারী প্রতিষ্ঠানের ঋণ পরিশোদ সংক্রান্ত ছাড়পত্র সংগ্রহ করে তা দাখিল করা ।

ওয়ারিশ সূত্রে মালিকানা বদলীর ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র:

১। পূরণকৃত ও স্বাক্ষরিত ‘টিও’ ও ‘টিটিও’ ফরম (এ দু’টি ফরমসহ অন্যান্য ফরম এ ওয়েবসাইটের https://goo.gl/vytt18 DOWNLOAD FORMS থেকে পাওয়া যাবে) ।

২। কোর্ট/স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান প্রদত্ত ওয়ারিশ সংক্রান্ত সনদ ।

৩। প্রয়োজনীয় ফি জমা দানের রশিদ ।

৪। একাধিক ওয়ারিশ থাকলে প্রথম ওয়ারিশের TIN সার্টিফিকেটের সত্যায়িত কপি (ভাড়ায় চলে না এমন কার, জিপ, মাইক্রোবাস-এর ক্ষেত্রে) ।

৫। মূল রেজিস্ট্রেশন সনদ (উভয় কপি)/ডিজিটাল রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেট(প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) ।

৬। ছবিসহ নন-জুডিসিয়াল স্ট্যাম্পে ওয়ারিশসূত্রে মালিকানা প্রাপ্তি সংক্রান্ত ওয়ারিশগণের হলফনামা (একাধিক ওয়ারিশ থাকলে এবং একজনের নামে মালিকানা প্রদান করা হলে সেক্ষেত্রে অন্যান্য ওয়ারিশগণ কর্তৃক সকলের ছবিসহ নন-জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে আর একটি হলফনামা) ।

৭। নমুনা স্বাক্ষর ফর্মে নমুনা স্বাক্ষর এবং ইংরেজীতে নাম, পিতার/স্বামীর নাম, পূর্ন র্ঠিকানা ও ৩ কপি স্ট্যাম্প আকারের রঙ্গীন

ফটোসহ ফরমের অন্যান্য তথ্য পূরণ ।

 

মোটরসাইকেলের মালিকানা ফরম

 

 

 

<<<<<< Guinness World Record – For Registration Click Here>>>>>>

অতএব পাঠকেরা আশা করি মোটরসাইকেল মালিকানা পরিবর্তন বিষয়ে আপনাদের কিছুটা ধারনা হয়েছে । আশা করি এর পরে আপনারা মালিকানা পরিবর্তনের সময় টাকা পয়সা বা কি কাগজ পত্র লাগবে সে বিষয়ে ধারনা পেয়েছেন । আর আপনাদের কিছু জানা থাকলে অবশ্যই আমাদের কমেন্টের মাধ্যমে জানাবেন । অতএব নিরাপদে থাকুন এবং নিরাপদে বাইক চালান । ধন্যবাদ সবাইকে ।

 

তথ্যসূত্রেঃ বিআরটি

About Arif Raihan opu

One comment

  1. জহিরুল ইসলাম

    আমি একজন চাকুরীজীবি,
    আমি ১টি পুরাতন ডিসকভার মটরসাইকেল কিনেছি ০৫/০৮/২০১৮ তারিখে।গাড়ির ডিজিটাল নাম্বার প্লেট আছে।কিন্তু সমস্যা হল যার নামে গাড়ির কাগজপত্র করা সে গত ৪ মাস আগে মারা গেছে।আমি গাড়িটা মৃত ব্যক্তির স্ত্রীর কাছ থেকে কিনেছি।এখন আমার প্রশ্ন হল উক্ত গাড়ির কাগজ পত্র আমার নামে কিভাবে করব? দয়া করে বললে উপকৃতহতাম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*