বৃষ্টির সময় মোটরসাইকেল রাইডিং এর সেফটি টিপস

বৃষ্টির মাঝে খুব নিরাপদে বাইক রাইডিং করতে হয় না হলে ঘটে যেতে পারে মারাত্মক সব দুর্ঘটনা । পিচ্ছিল রাস্তা, বৃষ্টির জন্য ঝাপসা দেখতে পাওয়া , ব্রেক ঠিকভাবে কাজ না করা , টায়ার স্লিপ সহ অনেক ধরণের সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় বৃষ্টির মাঝে মোটরসাইকেল রাইডিং করার সময় । চলুন দেখে আসি বৃষ্টির সময় মোটরসাইকেল রাইডিং এর সেফটি টিপসগুলো । বৃষ্টির সময় মোটরসাইকেল রাইডিং এর সেফটি টিপস ১। জুতার জন্য রেইন কভার ব্যবহার করাঃ বৃষ্টির সময় পানিতে ভিজে আপনার জুতা পিচ্ছিল হয়ে থাকতে পারে এবং জুতা চামড়ার হলে তো জুতার অবস্থা খারাপ হয়ে যাবে । জুতার তলানি পিচ্ছিল হবার ফলে ব্রেক চাপার…

Review Overview

User Rating: 3.35 ( 2 votes)

বৃষ্টির মাঝে খুব নিরাপদে বাইক রাইডিং করতে হয় না হলে ঘটে যেতে পারে মারাত্মক সব দুর্ঘটনা । পিচ্ছিল রাস্তা, বৃষ্টির জন্য ঝাপসা দেখতে পাওয়া , ব্রেক ঠিকভাবে কাজ না করা , টায়ার স্লিপ সহ অনেক ধরণের সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় বৃষ্টির মাঝে মোটরসাইকেল রাইডিং করার সময় । চলুন দেখে আসি বৃষ্টির সময় মোটরসাইকেল রাইডিং এর সেফটি টিপসগুলো

বৃষ্টির সময় মোটরসাইকেল রাইডিং এর সেফটি

বৃষ্টির সময় মোটরসাইকেল রাইডিং এর সেফটি টিপস

১। জুতার জন্য রেইন কভার ব্যবহার করাঃ

বৃষ্টির সময় পানিতে ভিজে আপনার জুতা পিচ্ছিল হয়ে থাকতে পারে এবং জুতা চামড়ার হলে তো জুতার অবস্থা খারাপ হয়ে যাবে । জুতার তলানি পিচ্ছিল হবার ফলে ব্রেক চাপার সময় কিংবা গিয়ার পরিবর্তনের সময় পা পিছলে অনেক সময় অনেকেই ব্যথ্যা পেয়ে থাকেন ।

তাই আপনার উচিৎ রেইন কভার ব্যবহার করা । আপনি যেকোন বাইক এক্সেসরিজ এর দোকান থেকেই এগুলো কিনতে পারবেন ।এছাড়াও আজকাল অনলাইনে এই ধরণের বাইক রাইডিং গিয়ার সহজেই পাওয়া যাচ্ছে বাংলাদেশে । তাই যত দ্রুত সম্ভব আপনার জন্য একজোড়া রেইন কভার কিনে নিন এবং সম্ভাব্য দুর্ঘটনার হাত থেকে বাঁচুন ।

২। রেইন জ্যাকেট মোটরসাইকেল রাইডারদের জন্যঃ

মোটরসাইকেল রাইডারদের জন্য স্পেশাল ভাবে তৈরি ওয়াটারপ্রুফ রেইন জ্যাকেট কিনে নিতে পারেন । এটি আপনার পুরো শরীর কে ভিজে যাবার হাত থেকে রক্ষা করবে ।আপনি যদি নতুন বাইক চালক হয়ে থাকেন তবে বাইক রাইডিং এর জন্য প্রয়োজনীয় সকল এক্সেসরিজ দেখে অভিজ্ঞতা নিয়ে নিতে পারেন ।

safety tips in rains

৩। বডি আর্মোর জ্যাকেট অধিক নিরাপত্তার জন্যঃ

মোটরসাইকেল রাইডারদের জন্য সর্বোচ্চ নিরাপত্তা প্রদানের লক্ষ্যে বাজারে অনেক ধরণের এবং ডিজাইনের মজবুত বডি আর্মোর জ্যাকেট পাওয়া যায় ।

যার মাঝে থাকে মজবুত আঘাত প্রতিরোধী ব্যবস্থা এবং ফুল জিপার ফ্রন্ট ক্লোজ সিস্টেম থাকে । বেল্টটি আপনি সহজেই আপনার মত এডজাস্ট করে নিতে পারবেন । এই ধরণের জ্যাকেট পরিহিত অবস্থায় বুকে কাঁধে আঘাত লাগা থেকে অনেকটাই রক্ষা পাওয়া যায় ।

৪। ভাইসর ফগিং যুক্ত হেলমেট এর ব্যবহার করাঃ

প্রতিদিনের বাইক চালনার ক্ষেত্রে আপনাকে যেমন হেলমেট অত্যাবশ্যকীয় ভাবে ব্যবহার করতে হবে ঠিক তেমন করে বৃষ্টির জন্য স্পেশাল একটি হেলমেট কিনে নেয়া আপনার প্রয়োজন যার মাঝে ভিসর ফগিং সুবিধা আছে । অর্থাৎ বৃষ্টি প্রতিরোধী এবং ভেতরে সঠিক ভাবে শ্বাস প্রশ্বাস নেয়া যায় এমন ।

অনেক নতুন নতুন হেলমেট এবং অসাধারণ সব ডিজাইন এর হেলমেট বাংলাদেশের যেকোন বাইক এক্সেসরিজ এর দোকান এ গেলেই দেখতে পাবেন ।

motorcycle safety tips

৫। মোটরসাইকেল এর জন্য ওয়াটারপ্রুফ বডি কভারঃ

বৃষ্টির দিনে বাইক এর সুরক্ষার জন্য সবচাইতে উপযোগী হল এই বাইক কভার । অফিসের বাইরে বাইক রেখে কাজ করছেন ? হটাৎ করেই বৃষ্টি নেমে এসেছে ? কোন সমস্যাই হবেনা যদি আপনি কিনে নেন একটি বাইক কভার এবং সেটা দিয়ে আপনার বাইক ঢেকে রাখেন ।

এছাড়াও অতিরিক্ত রোদের তাপেও অনেক সময় বাইকের ফুয়েল ট্যাংক এর রং কিছুটা নস্ট হয়ে যায় এই কভার এই ধরণের সমস্যা থেকেও আপনাকে মুক্তি দিবে।

৬। ফ্ল্যাশিং এলইডি ফ্যাশ লাইটঃ

আজকাল সবাই এই ধরণের লাইট বাইকের মাঝে ব্যবহার করছে অন্ধকারের মাঝে কিংবা আপনার হেডলাইট বিকল হয়ে গেলে কখনো এই লাইটগুলো অনেক কার্যকরী ভুমিকা পালন করে আপনার বাইক এর অবস্থা বোঝাবার জন্য ।

Motorcycle race in the rain

৭। আলোর প্রয়োজন অনুভব করলে কিনে নিন গ্লোভ লাইটঃ

নতুন প্রযুক্তির এই লাইট থাকে মোটরসাইকেল এর গ্লোভ এর মাঝে এবং যা পরে যাবার বা হারিয়ে যাবার ভয় নেই । তাই কখনো আলোর প্রয়োজন হলে আপনার একটা আঙুলের চাপই যথেষ্ট আলোর অভাব দূর করতে ।

৮। এন্টি-রাস্ট এন্ড প্রোটেকশনঃ

মোটরসাইকেল এর মেটাল বডির মাঝে বৃষ্টির প্রভাবে যেন কোন ক্ষতি না হয় এবং গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় যেন জং ধরে না যায় সে জন্য আপনি এই ধরণের এন্টি-রাস্ট স্প্রে ব্যবহার করতে পারেন । আমার মতে এই বৃষ্টির সময় মোটরসাইকেল রাইডিং এর সেফটি টিপসগুলো সকল মোটরসাইকেল রাইডারদের লক্ষ্য রাখা উচিৎ ।

লিখেছেনঃ আশরাফুল ইসলাম

About Arif Raihan opu

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*