• Partners:
  • Gear-X - Official Accessories Partner of BikeBD
  • Mobil - Official Lubricant Partner of BikeBD
  • Finder - Official Bike Security Partner of BikeBD
  • Carnival Assure - Official Insurance Partner of BikeBD

বাইক দীর্ঘদিন বন্ধ রাখলে যে সমস্যাগুলো দেখা দেয় – সমাধান

অনেক সময় দেখা যায় বিভিন্ন কারনে বাইক দীর্ঘদিন বন্ধ রাখতে হয়। আর আমরা সবাই জানি বাইক দীর্ঘদিন বন্ধ রাখলে বাইকে বেশ কিছু সমস্যা দেখা দিতে পারে। যাদের বাইক অনেকদিন ধরে বন্ধ থাকে তারা অনেক রকম সমস্যার সম্মুখীন হয়ে থাকেন। আজ আমরা বাইক দীর্ঘদিন বন্ধ রাখলে যে সমস্যাগুলো দেখা দেয় এবং এমন সমস্যা হলে আপনি কি করবেন সেটার সমাধান নিয়ে আলোচনা করবো।

বাইক দীর্ঘদিন বন্ধ

বাইক দীর্ঘদিন বন্ধ রাখলে যে সমস্যাগুলো দেখা দেয় এবং এর সমাধানঃ

১- ব্যাটারির সমস্যাঃ

বাইক যদি দীর্ঘদিন বন্ধ রাখা হয় তাহলে আমাদের বাইকের যে জিনিসটি সবার আগে ক্ষতিগ্রস্থ হয় সেটা হচ্ছে বাইকের ব্যাটারি। বাইক ফেলে রাখতে রাখতে দেখা যায় বাইকের ব্যাটারিতে আর চার্জ থাকে না। আবার অনেক সময় দেখা যায় বাইকের ব্যাটারি একেবারে নষ্ট হয়ে যায়। তাহলে সমাধান কি? সমস্যা থাকলে তার সমাধানও আছে।

সমাধানঃ

আপনি যদি আপনার বাইক দীর্ঘদিন বন্ধ রাখেন তাহলে আপনার বাইকের ব্যাটারিটি ফুল চার্জ করে নিন। তারপর বাইক বন্ধ করে রাখার আগে মুহুর্তে বাইকের ব্যাটারি খুলে রাখুন। বাইকের ব্যাটারি খুলে রাখলে বাইকের ব্যাটারি নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে।

ব্যাটারির সমস্যা

তবে আপনি যদি সামান্য কিছুদিনের জন্য বাইক অফ রাখতে চান সেক্ষেত্রে বাইকের ব্যাটারি খুলে রাখার দরকার নেই। তবে বাইকে যদি এমন কোন ডিভাইস লাগানো থাকে যেটা আপনার বাইকের ব্যাটারির উপর অতিরিক্ত চাপ ফেলে সেক্ষেত্রে সেই ডিভাইসটি খুলে রাখতে পারেন।

সবচেয়ে ভালো উপায় হচ্ছে যদি সুযোগ থাকে তাহলে বাইক চালান আর নাই চালান বাইকটি কিছুদিন পর পর স্টার্ট দিয়ে রাখুন। এতে করে আপনার বাইকের ব্যাটারি খুলেও রাখতে হবে না আবার ব্যাটারিতে সমস্যাও হবে না।

২- ইঞ্জিন অয়েলে সমস্যাঃ

বাইক যদি দীর্ঘদিন বন্ধ রাখা হয় তাহলে বাইকের ইঞ্জিন অয়েলে গাদ জমে যায়। যা বাইকের ইঞ্জিনের জন্য খুব বেশি ক্ষতিকর। বাইকের ইঞ্জিন অয়েলের কাজ হলো ইঞ্জিনকে পিচ্ছিল রাখা যেন সহজে ইঞ্জিনের পার্টস মুভ করতে পারে এবং একই সাথে এই ইঞ্জিন অয়েল ইঞ্জিনকে ঠান্ডা রাখতে সাহায্য করে। প্রতিটা বাইকের ইঞ্জিনে ইঞ্জিন অয়েলের ভূমিকা অনেক। তাই ইঞ্জিন অয়েল নষ্ট হলে সেই অয়েল কখনো ব্যবহার করা উচিৎ না।

ভালো ইঞ্জিন অয়েল

সমাধানঃ

আপনার বাইক যদি আপনি অনেক দিনের জন্য বন্ধ করে রাখতে চান তাহলে ভালো মানের একটা ইঞ্জিন অয়েল বাইকের ইঞ্জিনে ইনস্টল করুন। কারন আমি আমার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে বলছি ভালো ইঞ্জিন অয়েলে খুব সহজে গাদ জমে না, আর এই অয়েল অনেকদিন ফেলে রাখলেও নষ্ট হয় না। কিন্তু বাইক দীর্ঘদিন অফ থাকলে সেটা চালানোর আগে অবশ্যই ইঞ্জিন অয়েলটি ভালোভাবে চেক করে নিবেন।

আরও পড়ুন >> লকডাউনে বাইক বন্ধ রাখার আগে যে কাজগুলো করবেন

৩- জ্যাম হয়ে যাওয়াঃ

বাইক দিনের পর দিন না চালিয়ে ফেলে রাখলে বাইক জ্যাম হবেই, আর এটা যারা বাইক ফেলে রাখেন তারা সবাই কম বেশি জানেন। বাইক যখন দীর্ঘদিন ফেলে রাখা হয় তখন বাইকের চাকা, ক্যাবল সহ বাইকের বিভিন্ন অংশ জ্যাম হয়ে যায়। এই অবস্থায় যখন আপনি বাইক চালাবেন তখন আপনার মনে হবে আপনার বাইকটি কে যেনো ধরে আছে, আপনাকে যেতে দিচ্ছে না। বাইক ফেলে রাখলে এমটা হওয়া নরমাল ঘটনা।

সমাধানঃ

আপনি যখন অনেকদিন পর আপনার বাইকটি বের করবেন তখন আপনার বাইকটি আগে ভালোভাবে ধুয়ে নিবেন। এরপর বাইকটি চালিয়ে দেখবেন, যদি সমস্যা কিছুটা কম মনে হয় তাহলে বাইকটি কিছুদিন চালান দেখবে চালাতে চালাতে বাইকের জ্যাম ছুটে গেছে।

কিন্তু যদি তারপরও আপনার বাইকের সমস্যা ঠিক না হয়, তাহলে অভিজ্ঞ কোন মেকানিকের পরামর্শ নিন। প্রয়োজনে বাইকটি ভালোভাবে সার্ভিসিং করিয়ে নিন। দেখবেন আপনার বাইক জ্যাম হয়ে থাকার সমস্যা ঠিক হয়ে গেছে।

টায়ার নষ্ট হয়ে যাওয়া

৪- টায়ার নষ্ট হয়ে যাওয়াঃ

কি শুনতে অবাক লাগছে? বাইক ব্যবহার না করলে কিভাবে টায়ার নষ্ট হয়? আপনি জানেন কি আমাদের বাইকের টায়ারের একটা টেম্পার থাকে। আর আপনি যখন বাইকটি দীর্ঘদিন বন্ধ রাখেন তখন আপনার বাইকের টায়ারের টেম্পার নষ্ট হয়ে যেতে পারে।

আর ফলে আপনি বাইকের টায়ার থেকে আগের মতো গ্রিপ পাবেন না। আবার অনেক সময় দেখা যায় বাইক হাইস্পীডে চালানে বাইকের সামনের অংশ একা একা লাফাচ্ছে, কিংবা আপনার বাইকের হ্যান্ডেল কাঁপছে। এমন অনেক সমস্যা দেখা দিতে পারে। তবে বাইকের বল লেসার নষ্ট হলেও এই সমস্যা দেখা দিতে পারে।

সমাধানঃ

যদি বাইক দীর্ঘদিন বন্ধ রাখার পর আপনি এই সমস্যার সম্মুখীন হয়ে থাকেন তাহলে, বাইকটি আগে কিছুদিন টানা চালান। আমার বাইকেও এই সমস্যা হয়েছিলো, কিন্তু বাইকটি টানা একমাস চালানোর পর সমস্যাটি আপনা আপনি ঠিক হয়ে গেছিলো। তবে আপনার কাছে বেশি সমস্যা মনে হলে বাইকের টায়ার পরিবর্তন করে ফেলুন।

ইঁদুরে তার কেটে দেয়া

৫- ইঁদুরে তার কেটে দেয়াঃ

আপনি কি এমন কোন সমস্যার সম্মুখীন হয়েছেন কখনো? যদিও আমি আমার লাইফে এমন সমস্যার সম্মুখীন হই নাই কখনো। তবে আমার দেখা এমন অনেক বাইকার ভাই আছেন যারা এই সমস্যার সম্মুখীন হয়েছেন।

ইঁদুর বাইকের এমন অংশে প্রবেশ করেছে যা আপনি চিন্তাও করতে পারবেন না। কিন্তু ইঁদুর শুধু প্রবেশই করে নি সে আপনার বাইকের মধ্যে তার বসবাস গড়ে তুলেছে। যদি আপনার সাথে এমনটা হয় তাহলে আপনার ভাগ্য সত্যি খারাপ। কারন ইঁদুর যদি আপনার বাইকের গুরুতবপূর্ণ কোন তার কেটে ফেলে তাহলে আপনাকে অনেক বড় সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে।

সমাধানঃ

এর থেকে বাচতে হলে আপনার বাইকটি ভালোভাবে ঢেকে রাখতে হবে। শুধুমাত্র ঢেকে রাখলেই হবে না বাইকটি কিছুদিন পর স্টার্ট দিতে হবে অথবা বাইকটি নাড়াচাড়া দিতে হবে। কিন্তু অনেকের ক্ষেত্রে এটা করার সুযোগ থাকে না।

কেউ বাইক রেখে দেশের বাইরে চলে যান, সেক্ষেত্রে যদি সম্ভব হয় আপনার বাইকটির চাবি এমন কাউকে দিয়ে যান যে মাঝে মাঝে আপনার বাইকটি স্টার্ট দিয়ে রাখতে পারে। আর যদি এমন কেউ না থাকে তাহলে আর কি, বাইক চালু করার আগে ভালোভাবে সার্ভিসিং করিয়ে নিন।

আরও পড়ুন >> বাইক বন্ধ রেখে বাইক ভালো রাখার উপায়

মরিচা ধরে যাওয়া

৬- মরিচা ধরে যাওয়াঃ

বাইক দীর্ঘদিন বন্ধ রাখলে দেখা যায় বাইকের বিভিন্ন অংশে অনেক সময় মরিচা ধরে যায়। তবে এটা সব সময় কিন্তু হয় না, আবার সবার বাইকেও হয় না। তবে এটা হতে পারে, এর থেকে বাচার কিছু সহজ উপায় আছে।

সমাধানঃ

বাইক দীর্ঘদিন বন্ধ রাখার আগে বাইকটি ভালোভাবে ধুয়িয়ে রাখুন। বাইকটি ধুয়ানোর পর বাইকে ভালোভাবে পলিস করে নিন। অনেক রকম পলিশ বাজারে পাওয়া যায় যা আপনার বাইকের রঙ চকচকে রাখতে এবং বাইককে মরিচার হাত থেকে রক্ষা করতে সাহায্য করে।

পরিশেষে বলতে চাই, বাইক ভালো রাখতে হলে বাইক কম চালার আর বেশি চালান বাইক ব্যবহার করতে হবে। বাইক দীর্ঘদিন বন্ধ রাখলে বাইকে ছোট ছোট সমস্যা হতেই পারে। চলছে কঠোর লকডাউন, আইন মেনে চলুন আর নিরাপদ থাকুন।

ধন্যবাদ

We will be happy to hear your thoughts

      Leave a reply

      BikeBD
      Logo