বাইকের হলার , উচ্চ শব্দের হর্ণ লাগানোর জরিমানা এবং দণ্ড কি ?

আমরা অনেকেই বাইকের হলার এবং উচ্চ শব্দের হর্ণ ইনস্টল করে থাকি , কিন্তু আপনি জানেন কি নির্ধারিত শব্দমাত্রার অতিরিক্ত উচ্চমাত্রার কোনরূপ শব্দ সৃষ্টি আইনের চোখে অপরাধ। আজ আমরা বাইকে হলার , উচ্চ শব্দের হর্ণ লাগানোর জরিমানা এবং দণ্ড কি সেই সম্পর্কে আপনাদের সাথে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

বাইকের হলার

বাইকের হলার , উচ্চ শব্দের হর্ণ লাগানোর জরিমানাঃ

ধারাঃ ৮৮

অপরাধের ধরণঃ

নির্ধারিত শব্দমাত্রার অতিরিক্ত উচ্চমাত্রার কোনরূপ শব্দ সৃষ্টি বা হর্ণবাজানো বা কোন যন্ত্র, যন্ত্রাংশ বা হর্ণ মোটরযানের স্থাপন সংক্রান্ত ৪৫ এর বিধান লঙ্ঘন করলে আপনার যে শাস্তি হবে,

জরিমানাঃ

অনধিক ৫ হাজার টাকা।

দণ্ডঃ

অনধিক ১ বছর।

পয়েন্ট কর্তনঃ

১ পয়েন্ট কাটা হবে।

আরও পড়ুন >> ড্রাইভিং লাইসেন্স এর জরিমানা – ধারা এবং শাস্তি – ২০২১

ট্রাফিক সাইন

ধারাঃ ৮৫

অপরাধের ধরণঃ

ট্রাফিক সাইন ও সংকেতর ব্যবহার মানিয়া চলা সংক্রান্ত ধারা ৪২ এর বিধান লঙ্ঘন করলে আপনার যে শাস্তি হবে,

জরিমানাঃ

অনধিক ১০ হাজার টাকা

দণ্ডঃ

অনধিক ১ মাস

পয়েন্ট কর্তনঃ

১ পয়েন্ট কাটা হবে।

গতিসীমা

ধারাঃ ৮৭

অপরাধের ধরণঃ

মোটরযানের গতিসীমা নিয়ন্ত্রণ সংক্রান্ত ধারা ৪৪ এর বিধান লঙ্ঘন করলে আপনার যে শাস্তি হবে,

জরিমানাঃ

অনধিক ১০ হাজার টাকা

দণ্ডঃ

অনধিক ১ বছর

পয়েন্ট কর্তনঃ

১ পয়েন্ট কাটা হবে

আরও পড়ুন >> সড়ক পরিবহন আইন – ধারা এবং জরিমানা

সড়ক পরিবহন আইন

ধারা ৯০ঃ

অপরাধের ধরণঃ

মোটরযান পার্কিং এবং যাত্রী বা পণ্য উঠানামার নির্ধারিত স্থান ব্যবহার সংক্রান্ত ধারা ৪৭ এর বিধান লঙ্ঘন

জরিমানাঃ

অনধিক ৫ হাজার টাকা

দণ্ডঃ

অনধিক ১ বছর

পয়েন্ট কর্তনঃ

১ পয়েন্ট কাটা হবে

দুর্ঘটনা

ধারা ১০৫ঃ

এই ধারাটা সবার ভালোভাবে জানা থাকা উচিৎ,

অপরাধের ধরণঃ

দুর্ঘটনা সংক্রান্ত অপরাধ মোটরযান চালনাজনিত কোনো দুর্ঘটনায় গুরুতরভাবে কোন ব্যক্তি আহত হইলে বা তার প্রাণহানি ঘটলে, তৎসংক্রান্ত অপরাধসমূহ ( Panal Code , 1860 (Act No XL V of 1860) এর এতদসংশ্লিস্ট বিধান অনুযায়ী অপরাধ বলিয়া গণ্য হইবে।

  • তবে শর্ত থাকে যে, ( Panal Code, 1860 ( Act No.XL V of 1860) Gi Section 304 b এর Section 304 b ৩০৪ ন এ যাহা কিছুই থাকুক না কেন, কোন ব্যক্তির বেপরোয়া বা অবহেলাজনিত মোটরযান চালানোর কারনে সংঘটিত দুর্ঘটনায় কোন ব্যক্তি গুরুতরভাবে আহত হইলে বা তাহার প্রাণহানি ঘটলে, উক্ত ব্যক্তি অনধিক ৫ বছর কারাদন্ড, বা অনধিক ৫ লক্ষ টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দন্ডে দণ্ডিত হইবেন – নিরাপত্তা অপরাধ বিচার দণ্ড ও জরিমানা।

সব সময় আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থাকুন , ট্রাফিক আইন মেনে বাইক রাইড করুন।

ধন্যবাদ।

About Ashik Mahmud

ashik.bikebd@gmail.com'

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*