দিন দিন বাইকের গতি কি কমে যাচ্ছে ? এর সমাধান এবং বিস্তারিত

নিজের প্রিয় বাইকে গতি আমরা সবাই পছন্দ করি। দিন দিন বাইকের গতি কি কমে যাচ্ছে ? একটা সময় দেখা যায় আপনি আপনার বাইকটি থেকে আগের মতো গতি পান না। কিন্তু আপনি যদি আপনার বাইকটি সঠিক যত্ন নেন এবং কিছু বিষয়ে খেয়াল রাখেন আপনি আপনার বাইক থেকে অনেক ভালো গতি পাবেন সব সময়। বাইকে ভালো গতি পেলে হলে আপনাকে অবশ্যই বেশ কিছু দিকে খেয়াল রাখতে হবে।

দিন দিন বাইকের গতি কি কমে যাচ্ছে এর সমাধান এবং বিস্তারিত

১- ভালো ফুয়েল ব্যবহার করাঃ

ফুয়েল হচ্ছে যানবাহনের খাদ্য। আপনি যেমন ভালো খাবার খেলে সুস্থ থাকতে পারেন ঠিক তেমনি বাইকের ইঞ্জিনকে ভালো রাখার জন্য এবং ভালো গতি পাওয়ার জন্য ভালো ফুয়েল খুব জরুরী। আমরা সাধারণত নিজের বাসার আশেপাশের ফুয়েল পাম্প থেকে ফুয়েল নিয়ে থাকি।

কিন্তু ফুয়েল নেয়ার আগে ভালো একটি ফুয়েল পাম্প নির্ধারণ করুন। আপনি যদি ভালোমানের ফুয়েল ব্যবহার করেন আপনি আপনার বাইকে ভালো গতিও পাবেন আবার ইঞ্জিন ও অনেকদিন ভালো থাকবে। সবার আগে আপনাকে ভালো ফুয়েল চিনতে হবে। ভালো ফুয়েল চেনার বেশ কিছু উপায় আছে আপনি যদি সেগুলো সর্ম্পকে জানেন তাহলে আপনি আপনার বাইকের জন্য ভালো ফুয়েল নিতে পারবেন।

Also Read: কিভাবে ভালো অকটেন চেনা যায়

ভালো ইঞ্জিন অয়েল

২- ভালো ইঞ্জিন অয়েল ব্যবহার করাঃ

একটি বাইকে যত প্রকারের অয়েল ব্যবহার করা হয় এর মধ্যে ইঞ্জিন অয়েল খুব বেশি গুরুত্বপূর্ণ। ইঞ্জিন অয়েল আপনার বাইকের ইঞ্জিনকে স্মুথ রাখতে এবং ইঞ্জিনকে পরিষ্কার রাখতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। আপনি যদি ভালো মানের আসল ইঞ্জিন অয়েল ব্যবহার করেন এবং তা সঠিক সময়ে পরিবর্তন করেন আপনি আপনার বাইক থেকে ভালো গতি পাবেন।

Also Read: বাইকের ইন্জিন অয়েল সম্পর্কে আপনার যা কিছু জানা প্রয়োজন

কার্বুরেটর টিউনিং

৩- কার্বুরেটর টিউনিংঃ

আপনি যদি কার্বুরেটর বাইক ব্যবহার করে থাকেন তাহলে কার্বুরেটর সঠিকভাবে টিউন করুন। সাধারণত প্রতি ৭৫০০ কি.মি. পর পর এটি টিউন করতে হয়। তবে একটা বিষয় অবশ্যই লক্ষ্য রাখুন এই কাজটি সব সময় অভিজ্ঞ কোন মেকানিক দিয়ে করাবেন। কার্বুরেটর টিউনিং যদি সঠিক না থাকে তাহলে আপনার বাইকে অনেক সমস্যা দেখা দিতে পারে।

টায়ার পরিবর্তন

৪- সঠিক সময়ে টায়ার পরিবর্তন করুনঃ

আমরা অনেকেই মনে করি টায়ারের সাথে গতির কোন সম্পর্ক নেই, কিন্তু এই ধারনা সম্পূর্ণ ভূল। টায়ারে যদি গ্রিপ ঠিক না থাকে তাহলে আপনি কিছুটা হলেও গতি কম পাবেন। আর শুধু কম গতি না টায়ার ঠিক না থাকলে আপনি নিরাপদে ব্রেকিং ও করতে পারবেন না। তাই চেষ্টা করুন সঠিক সময়ে টায়ার চেঞ্জ করে ফেলতে।

সঠিক টায়ার প্রেসার

৫-সঠিক টায়ার প্রেসার রাখাঃ

আপনি যদি আপনার বাইক থেকে ভালো গতি আশা করেন তাহলে আপনার বাইকের টায়ারে অবশ্যই সঠিক টায়ার প্রেসার রাখতে হবে। টায়ার প্রেসার কম থাকলে আপনি কখনোই আপনার বাইক থেকে ভালো গতি পাবেন না। আবার যদি টায়ারে প্রেসার বেশি থাকে তাহলে সেই টায়ার কখনো ভালো গ্রিপ দিবে না। তাই টায়ার প্রেসার সব সময় সঠিক রাখুন।

বাইকের চেইন এর যত্ন

৬- বাইকের চেইন এর যত্ন নেয়াঃ

বাইকের চেইন গতিতে অনেক ভূমিকা রাখে। চেইন যেমন বাইকের স্পীড বাড়ানোর জন্য কাজ করে তেমনি নিরাপদ পথচলাও নিশ্চিত করে। তাই সব সময় বাইকের চেইনের দিকে লক্ষ্য রাখুন। চেইন লুস থাকতে সেটা টাইট করিয়ে নিন। তবে সব সময় লক্ষ্য রাখুন চেইন যেন বেশি লুস অথবা টাইট না থাকে।

আমরা যারা বাইক চালায় তারা কম বেশি চেইন স্পোকেটের সাথে পরিচিত। চেইন স্পকেট যদি ক্ষয় হয়ে যায় আপনি আপনার বাইকে ভালো গতি পাবেন না। বাইকে ভালো গতি পেতে হলে আপনাকে বাইকের চেইন এবং চেইন স্পোকেটের দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।

৭- দিনের শুরুতে ইঞ্জিন গরম করে নিনঃ

সকাল বেলা আমরা অনেকেই বাইক স্টার্ট করে হাই আরপিএমে বাইক চালায়। কিন্তু এই কাজটা করা উচিৎ না। এর ফলে আপনার বাইকের ইঞ্জিনের পারফরম্যান্স কিছুটা কমে যেতে পারে। দিনের শুরুতে বাইক স্টার্ট দেবার সময় কিক ব্যবহার করুন। যে সব বাইকে কিক নেই তারা বাইক স্টার্ট করে কমপক্ষে ১ মিনিট অপেক্ষা করুন। বাইকের ইঞ্জিন গরম করে তারপর বাইক চালানো শুরু করুন। সকালের শুরুর দিকে বাইক হাই আরপিএমে চালানো থেকে বিরত থাকুন।

বাইকের ব্রেক

৮- বাইকের ব্রেকের দিকে লক্ষ্য রাখাঃ

বাইকের ব্রেক যেমন আপনার নিরাপদ পথচলা নিশ্চিত করে, ঠিক তেমনি আপনার বাইকের গতির সাথেও এটি যুক্ত আছে। আপনার বাইকের ব্রেক যদি কোন কারনে খুব বেশি টাইট থাকে তাহলে আপনার বাইকের ইঞ্জিন থেকে প্রচুর শক্তি খরচ হবে কিন্তু গতি খুব ভালো পাবেন না। টাইট ব্রেক বাইকের গতি কমে যাওয়ার পিছনে বিশেষ ভূমিকা রাখে, সেজন্য এই দিকে লক্ষ্য রাখুন।

এয়ার ফিল্টার পরিবর্তন

৯- এয়ার ফিল্টার পরিবর্তনঃ

সময় মতো এয়ার ফিল্টার পরিবর্তন করুন। আমরা অনেকেই বাইকের এয়ার ফিল্টার নিয়ে উদাসীন। কিন্তু এয়ার ফিল্টার বাইয়াকের ইঞ্জিনকে অনেকভাবে সহায়তা করে। সার্ভিসিং এর সময় এয়ার ফিল্টার চেক করুন। যদি এয়ার ফিল্টার নষ্ট হয়ে যায় সেটা পরিবর্তন করুন।

ভালব

১০- ভালব এর দিকে লক্ষ্য রাখাঃ

উপরোক্ত সব কিছু যদি ঠিক থাকে কিন্তু তারপর যদি আপনার বাইকের গতি কম আসে তাহলে ভালো কোন মেকানিক দিয়ে আপনার বাইকের ভালব চেক দেয়ান। যদি দেখেন সেটি ক্ষয় হয়ে গেছে অথবা তাতে কোন সমস্যা আছে তাহলে দেরি না করে আপনার বাইকের ভালব চেঞ্জ করিয়ে ফেলুন।

চাকার দিকে লক্ষ্য রাখা

১১- চাকার দিকে লক্ষ্য রাখাঃ

অনেক সময় আমাদের বাইকের চাকা জ্যাম হয়ে যায়, যা আমরা নিজেরাও জানি না। যদি এমনটা হয় তাহলে আপনার বাইকে গতি কখনোই ভালো উঠবে না। তাই মাঝে মাঝে চাকার দিকে লক্ষ্য রাখুন চাকা যদি জ্যাম হয়ে যায় তাহলে সেটা ঠিক করিয়ে নিন।

সাধারণত এই কারনগুলোর জন্য বাইকের গতি কমে যায়। আপনি যদি বাইকের যত্ন নেন এবং নিয়মিত বাইক সার্ভিসিং করান আপনি তাহলে আপনার বাইক থেকে অবশ্যই ভালো গতি পাবেন। সব সময় হেলমেট ব্যবহার করুন এবং নিরাপদ গতিতে বাইক রাইড করুন।

About Ashik Mahmud

ashik.bikebd@gmail.com'

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*