কিভাবে ভালো অকটেন চেনা যায় । জানুন বিস্তারিত। বাইকবিডি

আমরা সবাই জানি আমাদের দেশে ফুয়েলের কোয়ালিটি ভালো না। পেট্রোল ব্যবহার করেন অথবা অকটেন সব কিছুর সাথে কেরোসিন মেশানো থাকে। তবে অনেক পাম্প আছে যাদের অকটেনের কোয়ালিটি অন্যদের থেকে কিছুটা ভালো। কিন্তু আপনি যদি ভালো অকটেন চেনার উপায় জানেন তাহলে আপনি নিজেই বুঝতে পারবেন আপনি আপনার বাইকে ভালো নাকি খারাপ অকটেন ব্যবহার করছেন। আজ আমরা জানবো কিভাবে ভালো অকটেন চেনা যায়,অকটেনে কেরোসিন মিশালে কেনো এর রঙ খুব বেশি পরিবর্তন হয় না এই সম্পর্কে। সবার আগে অকটেন সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক।

কিভাবে ভালো অকটেন চেনা যায় । জানুন বিস্তারিত। বাইকবিডি

অকটেন কি?

আমাদের মধ্যে এমন অনেক বাইকার আছেন যারা মনে করেন পেট্রোল ও অকটেন দুটি ভিন্ন ধরণের জ্বালানী। আপনিও যদি এমনটা জেনে থাকেন তাহলে আপনার ধারণাটা ভুল । অকটেন এবং পেট্রোল একই ধরণের জ্বালানী এবং এদের রাসায়নিক গঠনও একই (C8H18 ) । ইন্টারন্যাশনাল ভাবে এই জ্বালানীকে বলা হয় গ্যাসোলিন এবং ইন্টারন্যাশনাল ভাবে অকটেন নাম্বার দ্বারা প্রকাশ করা হয়। যাকে RON বলা হয়, RON দ্বারা এদের কোয়ালিটি পরিমাপ করা হয়।

আঙুলের মাথায় লাগালে একটু পর বাতাসে উড়ে যাবে

Also Read: পাম্প থেকে পেট্রোল চুরি বোঝার উপায় এবং এর সমাধান

যেমন:অকটেনের RON 91 আর পেট্রোলের ক্ষেত্রে হল 87 ।

 

ভালো অকটেন চেনার উপায়ঃ

ভালো অকটেনের কিছু গুণ থাকে যা দেখে আপনি বুঝতে পারবেন অকটেন ভালো নাকি খারাপ। চলুন সেগুলো নিয়ে জেনে নেয়া যাকঃ

অকটেনের রং

১- অকটেনের রংঃ

সব সময় একটা জিনিস মনে রাখবেন ভালো অকটেন হালকা গোলাপি রঙের হয় এবং পেট্রোল দেখতে কমলা রঙের হয়। যদি আপনার অকটেনে কমলা রঙের ভাব থাকে তবে বুঝবেন অকটেনে পেট্রোল মিক্স করা আছে।

২-অকটেনের ঘ্রাণঃ

ভালো অকটেনে স্প্রিটের মতো হালকা ঝাঁঝালো ঘ্রাণ থাকবে। তবে আপনি যদি একজন বাইকার হয়ে থাকেন তাহলে এই ঘ্রাণ আপনার কাছে খারাপ লাগবে না ভালোই লাগবে।

বাতাসে উড়ে যাবে

 

৩-হাতের উপরিভাগে রেখে হাল্কা ঘষা দিলে একটু পর বাতাসে উড়ে যাবেঃ

ভালো অকটেন চেনার এটা সবচেয়ে সহজ উপায়। কয়েক ফোঁটা অকটেন আঙুলের মাথায় নিয়ে হাতের উপরিভাগে নিয়ে ঘষা দিন। কিছুক্ষণ পর ভালো মতো লক্ষ্য করলে দেখবেন আপনার হাতের যে অংশে অকটেন লাগিয়েছিলেন সেটি শুকিয়ে যাবে।
কিন্তু অকটেন যদি ভালো না হয়, অথবা কেরোসিন মিশানো থাকে তবে হাতের ওই অংশটি তেলতেলে অথবা ভেজা থেকে যাবে।

৪-মাটিতে ফেলে টেস্ট করাঃ

সামান্য কয়েক ফোঁটা অকটেন উপর থেকে মাটিতে ফেলে দিন। যদি সেটা মাটিতে পড়ার আগে বাতাসে উড়ে যায় তাহলে সেই অকটেনটি ভালো। কিন্তু যদি অকটেনে কোন ভেজাল অথবা মিক্সার থাকে তাহলে সেটি মাটিতে পরে যাবে।

অকটেনের সাথে কেরোসিন মিশালে কি রঙ পরিবর্তন হয়?

অকটেনের সাথে কেরোসিন মিশালে  রঙ খুব বেশি পরিবর্তন হয় না। এর কারন হচ্ছে অকটেনের সাথে রেগুলার কেরোসিন মিশানো হয় না। মেশিনে কেরোসিন রিফাইন্ড করার পর যে অংশ থাকে সেটা কেরোসিনের অদাহ্য অংশ আর এটি দেখতে পানির মতো স্বচ্ছ হয়। এজন্য অকটেনের সাথে এই কেরোসিন মেশানো হলে অকটেনের রঙ পরিবর্তন হয় না।

কেরোসিন মেশানো অকটেন ব্যবহার করলে কি কি ক্ষতি হয়?

ভেজাল অয়েল আপনার বাইকের ইঞ্জিনের অনেক ক্ষতি করে। অকটেনে এই স্বচ্ছ কেরোসিন মেশালে অকটেন পুড়তে চায় না।যার ফলে বাইকের স্পার্ক প্লাগে বেশি বেশি কার্বন জমে যায় এটি আপনার ইঞ্জিনের জন্য ক্ষতিকর।

অকটেনের সাথে কেরোসিন মিশালে কি রঙ পরিবর্তন হয়

আপনি যদি সচেতন থাকেন এবং কিভাবে ভালো অকটেন চেনা যায় সেটা জানেন  তাহলে আপনি ভালো অকটেন চিনতে পারবেন। তবে একটা বিষয় সব সময় খেয়াল রাখবেন যদি কোন পাম্পে খুব বেশি কেরোসিনের গন্ধ পান এবং অকটেনের রঙ যদি কিছুটা কমলা হয়ে থাকে তাহলে সেখান থেকে ফুয়েল নেয়া থেকে বিরত থাকুন।

About Ashik Mahmud

ashik.bikebd@gmail.com'

2 comments

  1. nahidrobin20@gmail.com'

    হালকা গোলাপি রঙের অকটেন তো আজ পর্যন্ত কোন পাম্প এ দেখলাম না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*