কাওয়াসাকি বাজারে নিয়ে আসলো ৫০ হর্স পাওয়ারের বাইক

সারা দুনিয়াজুড়ে কাওয়াসাকি বাইকারদের কাছে খুব জনপ্রিয় একটি ব্রান্ড। কাওয়াসাকির নিনজা বাইকটির সাথে বাইকাররা খুব ভালোভাবে পরিচিত। নিনজা ছাড়াও কাওয়াসাকির আরো কিছু জনপ্রিয় বাইক আন্তজার্তিক বাজারে শক্ত জায়গা দখল করে আছে।

কাওয়াসাকি

২০২০ সালে বাইকাররা যে বাইকগুলোর জন্য অপেক্ষায় ছিলো তার মধ্যে একটি হল কাওয়াসাকি নিনজা জেডএক্স-২৫ আর। কিয়াওয়াসাকির এই ছোট্ট ইঞ্জিনের মেশিনটি অনেক বড় বড় বাইকের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে সক্ষম। বাইকটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ৪ টি সিলিন্ডারযুক্ত ২৫০ সিসির ইঞ্জিন। আমরা অনেকেই হইতো জানি যে কাওয়াসাকি নিনজা জেডএক্স-২৫ আর ১৭,০০০ আরপিএম শক্তি উৎপন্ন করতে সক্ষম।

ট্র্যাকশন কন্ট্রোল, রাইডিং মোড এবং একটি কুইক শিফটার যুক্ত কাওয়াসাকি নিনজা জেডএক্স ২৫ আর এই সেগমেন্টের সেরা ফিচারযুক্ত বাইক। বাইকটিতে অত্যাধুনিক ফিচারে কোন কমতি রাখা হয় নি। আন্তজার্তিক বাজারে লোকাল ডিলারদের কাছে এই বাইকটি আপনি পেয়ে যাবেন।

Malaysia Diaries | Malaysian Grand Prix | MotoGP Malaysia

বাইকটি প্রথম দেখাতে আপনার কাছে কল্পনার গেমের বাইক মনে হতে পারে, তবে এই বাইকটি সত্যি অনেক ইউনিক এবং বিশেষভাবে তৈরি করা হয়েছে।

১৭,০০০ আরপিএম জেডএক্স -২৫ আর বাইকটির শক্তি নিয়ে সবার মনে যে সন্দেহ ছিলো সেটা সম্ভবত সঠিক। দক্ষিণ-পূর্ব এশীয় সংবাদ সাইটগুলি থেকে জানা গেছে কাওয়াসাকি জেডএক্স -২৫ আর বাইকটি ৫০ হর্স পাওয়ার পর্যন্ত শক্তি উৎপন্ন করতে সক্ষম। এই পাওয়ার ফিগারটি সঠিক কিনা তা এখন দেখা যাক, তবে এটি অবশ্যই ছোট্ট পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়।

জেডএক্স ২৫ আর এর উদ্দেশ্য হল এশিয়ার বাজারগুলি বাদে যেখানে কাওয়াসাকি নিনজা ৪০০ জায়গা দখল করে আছে করে, সেই ভূমিকা পূরণ করা। যেখানে ৪০০ সিসি অনেক ব্যয় বহূল অথবা লাইসেন্সের অনুমতি নেই সেই জায়গাগুলোতে নিনজা ৪০০ এর কমতি পূরন করা।

অনেকে আশা করছেন, ৪৫ বিএইচপি কাওয়াসাকি নিনজা ৪০০-কে জেডএক্স-২৫ আর বাইকটির সাথে প্রতিস্থাপন করা সম্ভব হবে।

Kawasaki Ninja ZX-25R

আমরা কবে থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে জেডএক্স-২৫ আর রস্তায় দেখতে পারবো এটা এখনো সিউর না, তবে আশা করা যাচ্ছে এটি আগে এশিয়ার বাজারে জায়গা করে নিবে এবং ভবিষ্যতে কোন সময় এটি ইউরোপে আসবে।

এখন পর্যন্ত আমেরিকার মাটিতে নিনজা জেডএক্স ২৫ আর দেখা যাচ্ছে না। তবে, যদি এই জাতীয় মোটরসাইকেলের যথেষ্ট চাহিদা থাকে তাহলে ভবিষ্যতে নতুন মূল্যের ট্যাগ যুক্ত করে বাইকটি আমেরিকার বাজারে ছাড়া হবে।

About Ashik Mahmud

ashik.bikebd@gmail.com'

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*